,


শিরোনাম:
«» রাজধানীর তুরাগে ডোবা থেকে অজ্ঞাত তরুণীর মৃতদেহ উদ্ধার «» উত্তরায় মা দিবস উপলক্ষে ৩০জন রত্নগর্ভা ‘মা’কে সম্মাননা «» উত্তরায় শিনশিন জাপান হাসপাতালে রোগীকে আটক রেখে নয় লাখ টাকা বিল। «» আবদুল আউয়াল ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের পক্ষ থেকে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ «» তুরাগ বাসীসহ দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন কৃষকলীগের সভাপতি মোঃ নাসির উদ্দিন «» চাঁপাইনবাবগঞ্জে সার ডিলারদের অনিয়মে জিম্মি কৃষক ও চাষিরা «» ঢাকা-আশুলিয়া মহাসড়কে গাড়ির চাপায় সাবেক পুলিশ সদস্য নিহত «» চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে প্রশাসনকে কঠোর হওয়ার আহ্বান জানান এমপি হাবিব হাসান। «» মশার অসহ্যকর যন্ত্রণায় তিক্ত তুরাগবাসী, দায়িত্বশীলরা বলছেন অসহায়ত্বের কথা «» তুরাগে মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করাকে কেন্দ্র করে পুলিশের উপর বস্তিবাসীর হামলা। 

তুরাগের আবাসিক বাড়িতে চলছে দেহ ব্যবসা, খোঁজ নেই দ্বায়িত্বশীলদের

স্টাফ রিপোর্টারঃ রাজধানীর তুরাগ থানাধীন খায়ের টেকে অবাধে চলছে অবৈধ ভাবে দেহ ব্যবসা। অত্যান্ত কম বয়সী অসহায় কিশোরী মেয়েদের দিয়ে করাচ্ছেন এই ব্যবসা। ব্যবসা টি পরিচালনা করেন শরিয়তপুর থেকে আসা শিরীন।

গত নভেম্বর মাস থেকে টঙ্গী এলাকায় আইনসৃংখলা বাহিনীর তৎপরতায় অবৈধ দেহ ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। যারফলে টঙ্গী থেকে খায়ের টেক কাজী অফিসের পাশে মোহাম্মদ এনায়েতের দশ তলা ভবনের পঞ্চম তলার বাম পাশের ফ্ল্যাটটিতে এসে শুরু করেন এই ব্যবসা। অবশ্য ক্রয় শুত্রে এই ফ্ল্যাটের মালিক হলেন নয়ানীচালার বসবাসকারী  মোহাম্মদ আসাদ।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, তিনজন কিশোরী মেয়ে ও তিনজন প্রাপ্ত বয়ষ্ক মহিলা এবং দু’জন খরিদদারকে পাওয়া যায়। এরই সাথে ওই ফ্ল্যাটের বিভিন্ন স্থানে খোলামেলা ভাবে পড়ে থাকতে দেখা যায় বিপুল পরিমাণ ইয়াবা সেবন করার সরঞ্জামাদি।এই সময় বাড়ির মালিকের ছেলে রাজু ঘটনাস্থলে এসে সাংবাদিকের সাথে অসদাচরণ করে এবং জানায়, “আপনাদের কি করনিয় আছে করেন।আমি তাদেরকে আমি বাড়ি ছেড়ে দিতে বলেছি।”

এসম্পর্কে জানতে চাইলে অসহায় কিশোরীদের নিয়ে দেহ ব্যবসা করা শিরীন জানান, “এই ব্যবসায় কাঁচা টাকা তাই এই ব্যবসা করি। টঙ্গী থেকে আসলাম এখানে, এখান থেকে তাড়িয়ে দিলে অন্য স্থানে ব্যবসা শুরু করবো।আমার ব্যবসা চলমান থাকবে।”

এছাড়াও তিনি বার বার নিজের ফেসবুক আইডির কভার ফটোতে থাকা গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী  ওবায়দুল কাদের এর সাথে তোলা সেল্ফি দেখাচ্ছিলেন। অতঃপর তিনি সংবাদকর্মীরা চলে আসার পথে বলে উঠেন, “বেশি নিউজ নিউজ করবেন না, আমি সব পারি। সাংবাদিকদের নাম লিখে আত্মহত্যা করে সাংবাদিকদের ফাসিয়ে দিব।

 

এব্যপারে স্থানীয় কাউন্সিলর জনাব জাহাঙ্গীর হোসেন যুবরাজের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেস্টা করলে তাকে পাওয়া যায়নি।”
রাজধানীর উত্তরা জোনের উপ পুলিশ কমিশনারকে এই বিষয়টি অবগত করলে তিনি জানান,
“আপনারা উপস্থিত থাকাকালীন সময়ে আমাকে ইনফর্ম করলে আমি তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা নিয়ে সকলকে গ্রেফতার করে নিয়ে আসতে পারতাম। তবে এখন ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠালে তারা ঘটনা অস্বীকার করে পেশাদার সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরনের বানোয়াট কথা বলবে। তারপরও আমি ব্যপারটি দেখছি।”

স্থানীয় বাসিন্দারা সমাজ বিনষ্টকারী দেহ-ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে প্রশাসনের নিকট কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য জোর দাবি জানান।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ