,


শিরোনাম:
«» কক্সবাজার টেকনাফের এডভোকেট আব্দুর রহমান ইয়াবাসহ তুরাগে পুলিশের জালে ধরা। «» জিএম কাদেরের ফোন ছিনতাই করে ২৩ হাজার টাকা বিক্রি, বসুন্ধরা মার্কেট থেকে ৮ দিন পর খোলা ফোন উদ্ধার। «» শেরে-বাংলা নগরে প্রশাসনকে মাসোহারা দিয়েই চলছে সরকারি দপ্তরের গাড়ির তেল চুরি «» উত্তরায় কিশোর গ্যাংয়ের ছিনতাইয়ের কবলে পথচারীরা। «» আব্দুল্লাহপুরের তালাবদ্ধ গরুর সিকল কেটে থানায় এনে চাঁদা আদায় ক্ষুব্দ গরুর মালিক  «» ‘পড়ি বঙ্গবন্ধুর বই, সোনার মানুষ হই ‘-শীর্ষক সেরা পাঠকদের পুরষ্কার বিতরণী «» মহানন্দা নদীতে যূবকের রহস্যজনক মৃত্যু হস্তক্ষেপ নেই দায়িত্বশীলদের «» জেলা পুলিশ চাঁপাইনবাবগঞ্জ’র মাস্টার প্যারেড সম্পন্ন «» দখিনের দুয়ার উম্মোচনে ফরিদগঞ্জে আনন্দ র‍্যালী «» আব্দুল্লাহপুরে এনা পরিবহনের বাস চাপায় মৃত্যু পথযাত্রী নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী সাআ’দ।

কুমিল্লায় ইউএনও কতৃক সাংবাদিক লাঞ্ছিতের অভিযোগ ।

কুমিল্লা প্রতিনিধিঃ কুমিল্লায় দৈনিক দেশ রূপান্তর পত্রিকার কুমিল্লা জেলা প্রতিনিধি দেলোয়ার হোসেন জাকিরকে শারীরিকভাবে লাঞ্চিত করেছেন কুমিল্লার হোমনা উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা রুমন দে। স্থানীয় সংবাদকর্মী সূত্রে ও ভুক্তভোগী সাংবাদিক দেলোয়ার হোসেন জাকির জানায় ভোট কেন্দ্রে পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে আইডি কার্ড ও নির্বাচন অফিসের পর্যবেক্ষক কার্ড দেখিয়ে নিজের পরিচয় দেওয়ার পরও জাকিরের সাথে চরম দূর্ব্যবহার করেন নির্বাহী কর্মকর্তা রুমন দে এবং অস্বব্য ভাষায় গালমন্দ করেন।

নির্বাহী অফিসার রুমন দে’র বাজে আচরণের সুযোগ পেয়ে তার সাথে থাকা আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যরাও তেড়ে আসেন সাংবাদিক দেলোয়ার হোসেন জাকিরের দিকে, পরে পুলিশের কয়েকজন সদস্য সংবাদিক দেলোয়ার হোসেন জাকিরকে চিনতে পেরে পরিস্থিতি শান্ত করেন।

বুধবার (৫ জানুয়ারি) বেলা ১২ টার সময় কুমিল্লা জেলার লালমাই উপজেলার ৪ নং দক্ষিন ভুলইন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৭ নং ছোটতুলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।

৪ নং দক্ষিন ভুলইন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বেশ কয়েকটি কেন্দ্র ঘুরে বেলা ১২টার দিকে ৭ নং ছোটতুলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে যান তিনি। সেখানে র‌্যাব, বিজিবি, পুলিশের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। সাংবাদিক দেলোয়ার হোসেন জাকির জানান, কেন্দ্রে গিয়ে ওই কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার মোঃ খোরশেদ আলমের সাথে কথা বলে বের হয়ে আসার পর পরই তার পরিচয় জানতে চান নির্বাহী অফিসার রুমন দে, সাথে সাথে পরিচয় দিয়ে কর্মরত সংবাদপত্র ও নির্বাচন কমিশনের আইডি কার্ড দেখান তিনি, তাৎক্ষনিক ক্ষিপ্ত হয়ে কেন্দ্র থেকে বের হয়ে যেতে বলেন নির্বাহী অফিসার রুমন দে, এ সময় কোন কারণ ছাড়াই জাকিরকে অস্বভ্য ভাষায় গালমন্দ করতে থাকেন তিনি এবং বেশ কয়েকবার তার দিকে তেড়ে আসেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুমন দে’র এমন উস্কানিমূলক আচরনে উপস্থিত আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যরাও তেড়ে আসেন। পরে উপস্থিত বেশ কয়েকজন পুলিশ সদস্য সাংবাদিক জাকিরকে চিনতে পেরে নির্বাহী অফিসার রুমন দেকে চুপ করান। তিনি জানান, নির্বাহী অফিসার রুমন দে ও বিজিবি সদস্যদের নির্মম বাজে আচরণের সময়টি ধৈর্যের সাথে পার করেন এবং অল্প সময় কেন্দ্রে অবস্থান করে চলে আসেন।

নির্বাহী অফিসার রুমন দে’র এরকম অশালিন আচরণ ও সাংবাদিককে লাঞ্চিত করার বিষয়টি কুমিল্লা জেলা প্রশাসক মোঃ কামরুল হাসান ও প্রশাসনের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সার্বিক মোঃ শাহাদত হোসাইনকে জানান দেলোয়ার হোসেন জাকির। রুমন দে’র সাথে কথা বলবেন বলে জানান জেলা প্রশাসক।

সাংবাদিকের সাথে হোমনা উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুমন দে’র এমন বাজে আচরণের বিষয় জানতে পেরে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন কুমিল্লার সাংবাদিকরা। দেশ রূপান্তর কুমিল্লা প্রতিনিধি ও কুমিল্লা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক দেলোয়ার হোসেন জাকিরকে শারীরিকভাবে লাঞ্চিত করার ঘটনায় হোমনা উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুমন দে’র বিচার দাবি করে সাংবাদিকবৃন্দ।

সাংবাদিককে লাঞ্চিত ও বাজে আচরণ করার বিষয়ে জানতে চাইলে কুমিল্লা হোমনা উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুমন দে বলেন আমার সাথে কোন সাংবাদিকের সাথে এরকম ঘটনা ঘটেনি।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ