,


শিরোনাম:
«» রাজধানীর তুরাগে ডোবা থেকে অজ্ঞাত তরুণীর মৃতদেহ উদ্ধার «» উত্তরায় মা দিবস উপলক্ষে ৩০জন রত্নগর্ভা ‘মা’কে সম্মাননা «» উত্তরায় শিনশিন জাপান হাসপাতালে রোগীকে আটক রেখে নয় লাখ টাকা বিল। «» আবদুল আউয়াল ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের পক্ষ থেকে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ «» তুরাগ বাসীসহ দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন কৃষকলীগের সভাপতি মোঃ নাসির উদ্দিন «» চাঁপাইনবাবগঞ্জে সার ডিলারদের অনিয়মে জিম্মি কৃষক ও চাষিরা «» ঢাকা-আশুলিয়া মহাসড়কে গাড়ির চাপায় সাবেক পুলিশ সদস্য নিহত «» চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে প্রশাসনকে কঠোর হওয়ার আহ্বান জানান এমপি হাবিব হাসান। «» মশার অসহ্যকর যন্ত্রণায় তিক্ত তুরাগবাসী, দায়িত্বশীলরা বলছেন অসহায়ত্বের কথা «» তুরাগে মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করাকে কেন্দ্র করে পুলিশের উপর বস্তিবাসীর হামলা। 

বনানীতে ওয়ার্ড যুব মহিলা লীগ নেএী নারী ও মাদক সাপ্লাইয়ার তাসলীমা সিন্ডিকেট ফের সক্রীয়।

বিশেষ প্রতিনিধিঃ তাসলীমা বেগম অন্ধকার জগতের এক পরিচিত নাম বনানী থানা ১৯ নং ওয়ার্ড টিএনটি,স্যাটেলাইট,আদর্শ নগর বস্তির সাধারন মানুষের কাছে এক আতংক,যুব মহিলা লীগের পদ পদবী পুঁজি করে গড়ে তুলেছে তার একক রাজত্ব,দখলবাজী,চাঁদাবাজি,ধান্ধাবাজি,মাদক ব্যবসা নারী ব্যবসা সহ অবৈধ বিদুৎ, গ্যাস,পানি সরবরাহ করে প্রতি মাসে কয়েক কোটি টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ উঠেছে,একাধিক মামলায় জেল খাটা আসামী তাসলিমা বেগমের কাছে অসহায় বস্তির বাসিন্দারা তাসলিমার কথা না শুনলেই বন্ধ করে দেওয়া হয় জরুরী সেবা গ্যাস,বিদ্যুৎ,পানি এমন কি শারীরিক নির্যাতন ও মিথ্যে মামলা দিয়ে হয়রানি করার ও অভিযোগ রয়েছে।বেশ কিছু দিন আগে বস্তিবাসীরা তাসলিমার সিন্ডিকেটের অত্যাচারে অতিষ্ট হয়ে বিক্ষোভ মিছিল করে তাসলি হঠাও বস্তি বাঁচাও।বেশ কয়েকটি সরকারী দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করে ও লাভ হয়নি, বস্তিবাসীদের চাপে কিছুদিন গা ঢাকা দিলে ও বনানী থানা আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী নেতাদের শেল্টারে ফের সক্রীয় তাসলীমা বেগম,গুঞ্জন উঠেছে বনানী থানা ১৯ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের ৩ নং ইউনিট সভাপতি পদপ্রার্থী।

গুলশান ও বনানীর মতো অভিজাত এলাকার মাঝখানে টিএনটি,স্যাটেলাইট,আদর্শনগর,কড়াইল বস্তি যেন এক বিষফোঁড়া। রাজধানীর অন্যসব বড় বড় বস্তির মতো গুলশান,বনানী থানার এই বস্তিটিরও নামের সাথে সন্ত্রাস, মাদক ব্যবসা, চাঁদাবাজি, অপরাধীদের আশ্রয়স্থল, দখল ও পাল্টাদখলের বদনাম অঙ্গাঙ্গী হয়ে আছে।গুলশান,বনানী,এবং মহাখালীর মাঝে উপশহরের মত গড়ে উঠেছে কড়াইল বস্তি ।

রাজধানীর দরিদ্র মানুষদের আবাসস্থলে পরিণত হয়েছে এই বস্তি।এরা গার্মেন্টস শ্রমিক, দিনমজুর, গৃহপরিচারিকা, রিকশাওয়ালা সহ কায়িক শ্রমজীবী। বস্তিটি নগরীর শ্রমজীবী বহু মানুষকে মাথা গোঁজার ঠাঁই করে দিলেও অপরাধী, সন্ত্রাসীরাও সক্রিয় এখানে।

এ আর মোস্তফা তাসলীমা বেগমের প্রাক্তন স্বামী

দীর্ঘ বহু বছর যাবত উক্ত কড়াইল বস্তির এ আর মোস্তফা আদর্শনগর,স্যাটেলাইট,বস্তিতে বিভিন্ন ধরনের মাদক ইয়াবা,ফেনসিডিল,গাঁজা,সহ নারী ব্যবসা,বিদেশি অস্ত্রের ব্যবসা ও চাঁদাবাজি কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছেন।

উল্লেখ্য যে এ আর মোস্তফার পালিত সন্ত্রাসী ক্যাডারগন মাদকাসক্ত হয়ে উঠতি বয়সের মেয়েদের কে ইভটিজিং সহ ধর্ষনের মত জঘন্য কাজ করতে ও পরোয়া করছে না,এলাকার কেউ তাদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করলে তাদের কে প্রাণ নাশের হুমকি প্রদর্শন করে।

পুরো স্যাটেলাইট বস্তিতে এ আর মোস্তফা ও তার সহযোগীরা,সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজি,মাদক ব্যবসা,অবৈধ গ্যাস সংযোগ,পানি,ও অবৈধ বিদ্যুৎ সংযোগ পরিচালনা করছে। মোস্তফার বিরুদ্ধে দুদক দায়ের কৃত কতিপয় মামলা নাম্বার ও জিডি নং উল্লেখ করা হলো।

(১)ডিএমপি মোবাইল কোর্ট পরিচালিত মামলা নং-৯৩৩/১৪ তারিখ ০২/১১/২০১৪

(২)মামলা নং-২৫/৩৫৩ বনানী থানা অধিনস্থ তাং ২৪/১১/২০২০.

(৩)বনানী থানা জিডি নং-২১৯ তারিখ-০৩/০৩/২০২০.

(৪)বনানী থানা জিডি নং-১১৬৮ তারিখ-২১/১১/২০২০।

মাদকের সহজলভ্যতায় এলাকার যুব সমাজ আজ ধংসের সম্মুখীন,এলাকার সামাজিক পরিবেশ অত্যন্ত নিন্দনীয়।

এলাকার সচেতন নাগরিকদের দাবী ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে মাদকাসক্তি থেকে মুক্ত রেখে সুন্দর বসবাস যোগ্য পরিবেশ গড়তে হলে সমাজ থেকে এ আর মোস্তফা ও তার সহযোগীদের মত জঘন্য সন্ত্রাসী বাহিনীদের কে আইনের আওতায় এনে বাংলাদেশের প্রচলিত আইন অনুযায়ী গ্রেফতার সহ শাস্তি নিশ্চিত করা অতীব জরুরী।

উল্লেখ্য এ আর মোস্তফা প্রস্তাবিত সভাপতি কড়াইল ৩নং ইউনিট আওয়ামী লীগ ১৯ নং ওয়ার্ড বনানী থানা। রেশমীর ভয়ংকর ফাঁদ

রেশমীর বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অডিও ভিডিওতে নোংরামী করে অর্থ কামানো সহ ব্ল্যাক মেইলের গুরুতর অভিযোগ রয়েছে,রেশমীর টার্গেট ছিলো একাধীক প্রবাসী তাদের সাথে ভিডিও তে নোংরামী করে তা স্ক্রিনশট দিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছেড়ে দেওয়ার হুমকী দিয়ে মোটা অংকের টাকা দাবী করে,প্রবাসীরা মান সম্মানের ভয়ে তার শর্তমত মোটা অংকের দিলে ও তাদের কে বিভিন্ন ভাবে হয়রানি করে থাকে,রেশমীর শর্তমত রাজি না হলে নারী নির্যাতন মামলা দিয়ে হয়রানি করার অভিযোগ রয়েছে।ইতিমধ্যে রেশমীর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নোংরামীর কিছু স্ক্রীনশর্ট ভাইরালও হয়েছে পত্র পত্রিকায় ও অনেক লেখালেখি হয়েছে।

ফিরোজা বেগম মামলাবাজ নারী।

তাসলীমা বেগমের পালিত মামলা বাজ নারী ফিরোজা বেগম,স্যাটেলাইট আদর্শ নগর বস্তিতে তাসলিমা সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে কেউ মাথা উঁচু করে দাঁড়ালে তাদের কে দিয়ে মিথ্যে নারী নির্যাতন মামলা দায়ের করে হয়রানী করা হয়।ফিরোজা বেগম প্রবাস ফেরত নারী প্রায় এক বছর আগে প্রাবাস থেকে দেশে এসে তাসলিমা বেগমের সাথে আতাত করে চলছে তার মামলা বানিজ্য।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ