,


শিরোনাম:
«» তুরাগে গৃহবধু হত্যার অভিযোগে স্বামীর বন্ধু গ্রেফতার «» ভাড়া বাসায় অবস্থান করে স্বর্ণের দোকানে ডাকাতী করতো তারা’ «» ঈশ্বরদীতে ২০০ লিটার মদসহ গ্রেফতার ১ «» ঈশ্বরদীতে নবজাতক হত্যার অভিযোগ সাবেক স্বাস্থ্যকর্মীর আকলিমার বিরুদ্ধে «» সাংবাদিকতার দায় একমাত্র জনসাধারণের কাছে:তিতুমীর «» ঈশ্বরদীতে প্রণোদনার সার-বীজ প্রদানে স্বজনপ্রীতির অভিযোগ প্রকৃত কৃষকদের «» ঈশ্বরদীতে বালু খেকোদের কবলে বিলিন হাজার হেক্টর ফসলি জমি, দিশেহারা কৃষক «» ঠাকুরগাঁওয়ে বিশ্ব মৃত্তিকা দিবস পালিত র‍্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত «» চাঁপাইনবাবগঞ্জ সাবেক এমপি ও জেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদকের বাসভবনে হামলা «» চাঁপাইনবাবগঞ্জ কৃষকলীগের অনুষ্ঠানে সংঘর্ষে যুবলীগ নেতা মিনহাজ আহত

সেন্টমার্টিনে ফিরলো ভাসমান ৪০ যাত্রীঃ১১ ঘন্টা পর জীবন রক্ষা পেল সবার

নুরুল আলম,টেকনাফঃ টেকনাফ থেকে সার্ভিস ট্রলার যোগে সেন্টমার্টিনের উদ্দেশ্যে যাত্রা পথে ইঞ্জিন বিকল হয়ে ভাসমান অবস্থায় বঙ্গোপসাগরের ডুবুচরে আটকা পড়ে ১১ ঘন্টা পর সেন্টমার্টিনে ফিরলো নারী শিশুসহ ৪০ জন যাত্রী ও জীবন রক্ষা পেল । তারা সকলে সেন্টমার্টিন দ্বীপের বাসিন্দা বলে জানা গেছে। গতকাল মঙ্গলবার বিকেল ৫টায় টেকনাফ পৌরসভার খায়ুককালী জেটিঘাট হতে রওয়ানা দিয়ে বঙ্গোপসাগরে পৌঁছার পর এ ঘটনা ঘটে গেছে ৪ আগস্ট বুধবার ভোর চারটায় মাঝসাগরে আটকা পড়া সকলকে স্থানীয় জনগণ ও মাঝি মাল্লারা উদ্ধার করে তাদের সেন্টমার্টিনে নিরাপদে সম্মানের পৌঁছান।

ট্রলারের যাত্রী তানজিমুল হক, মহি উদ্দিন ও সেন্টমার্টিনের বাসিন্দার সাথে কথা বলে জানা যায় গতকাল মঙ্গলবার বিকাল ৫টায় দিকে সার্ভিস ট্রলার যোগে প্রায় ৪০ জন শিশু ও নারী-পুরুষ টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিন দ্বীপের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেয়। নাফ নদী ফেরিয়ে সাগরের মাঝ পথে পৌঁছলে ট্রলারটির ইঞ্জিন বিকল হয়ে পড়ে ও এই দুর্বাগ্য ট্রলারটি ভাসতে ভাসতে এক পর্যায়ে সাগরের  মিয়ানমার সীমান্তবর্তী নাইক্ষং দিয়ার পাশের চড়ে পৌঁছালে ইঞ্চিন বিকল হয়ে পড়ে। ঠিকাঠাক করতেই জোয়ারের পানি নেমে ভাটা হয়ে যায়। এতে চরে আটকা পড়ে। ট্রলারের চালক অপর একটি ট্রলারকে উদ্ধারের জন্য খবর দেয়। ট্রলারে পুরুষের পাশাপাশি ৪০ জন নারী ও শিশু ছিলো। তারা দীর্ঘ ১১ ঘন্টাে উদ্বেগ উৎকন্ঠায় ছিলো।

খবর পেয়ে দ্বীপের স্থানীয় জনসাধারণ ও মাঝি মোল্লারা সহযোগিতার জন্য ৩টি ট্রলার যোগে ওইখানে পৌঁছে। দীর্ঘ ১১ ঘন্টা চেষ্টার পর সাগরে ভাসমান সকল যাত্রীদের উদ্ধার করে ভোর চারটায় সময় সেন্টমার্টিনে পৌঁছতে সক্ষম হয়। এতে যাত্রীদের হতাহতের ঘটনা না ঘটলেও ট্রলারে বোঝাইকৃত পন্যাদীসহ ট্রলারটি ডুবো চরে ঢেউয়ের আঘাতে ডুবে যায়। এখনো ট্রলারটি উদ্ধারের প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে ও অব্যাহত রয়েছে। এই বিষয় খোঁজ নিয়ে আরো জানা যায়, সেন্টমার্টিন দ্বীপে কোভিড- ১৯ (করোনা) এর টিকা দেওয়ার কেন্দ্র না থাকায় কারণে তারা ভ্যাকসিন নিতে অধিকাংশ যাত্রীরা টেকনাফে শহরে আসছিল। টিকা নিয়ে ফিরতে এধরনের দূর্ঘটনার শিকার হয়েছে আল্লাহ হুকুম সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুর আহমেদ বলেন, বিকালের দিকে একটি যাত্রী বাহী ট্রলার সেন্টমার্টিন যাওয়ার উদ্দেশ্যে টেকনাফ ছেড়ে আসে।

নৌপথের নাইক্ষ্যংদিয়ার কাছাকাছি পৌঁছালে ট্রলারটি একটি চরের মধ্যে আটকা পড়ে। পরে ট্রলারটির ইঞ্জিন বিকল হয়ে যায়।  ওই ট্রলারে ৪০ জনের বেশি যাত্রী ছিলো। দ্রুত তাদের উদ্ধারে অপর একটি ট্রলারে গেলে দ্বিতীয় ট্রলারটিও আটকে যায়। পরে আরো দুইটি ট্রলারের মাধ্যমে তাদের উদ্ধার করা হয়েছে। এসব যাত্রীদের অনেকেই  উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে টিকে নিতে গিয়েছিলেন।  টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইউএনও মোহাম্মদ পারভেজ চৌধুরী জানান, ট্রলার দুটিকে উদ্ধারের জন্য বাংলাদেশ কোস্টগার্ডের সহযোগিতায় আরও দুইটি ট্রলার পাঠিয়ে উদ্ধার করা হয়। সেই সঙ্গে যাত্রীদের নিয়মিত খোঁজ খবর রেখে নিরাপদের কথা নিশ্চিত করেন ইউএনও।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ