,


শিরোনাম:
«» কক্সবাজার টেকনাফের এডভোকেট আব্দুর রহমান ইয়াবাসহ তুরাগে পুলিশের জালে ধরা। «» জিএম কাদেরের ফোন ছিনতাই করে ২৩ হাজার টাকা বিক্রি, বসুন্ধরা মার্কেট থেকে ৮ দিন পর খোলা ফোন উদ্ধার। «» শেরে-বাংলা নগরে প্রশাসনকে মাসোহারা দিয়েই চলছে সরকারি দপ্তরের গাড়ির তেল চুরি «» উত্তরায় কিশোর গ্যাংয়ের ছিনতাইয়ের কবলে পথচারীরা। «» আব্দুল্লাহপুরের তালাবদ্ধ গরুর সিকল কেটে থানায় এনে চাঁদা আদায় ক্ষুব্দ গরুর মালিক  «» ‘পড়ি বঙ্গবন্ধুর বই, সোনার মানুষ হই ‘-শীর্ষক সেরা পাঠকদের পুরষ্কার বিতরণী «» মহানন্দা নদীতে যূবকের রহস্যজনক মৃত্যু হস্তক্ষেপ নেই দায়িত্বশীলদের «» জেলা পুলিশ চাঁপাইনবাবগঞ্জ’র মাস্টার প্যারেড সম্পন্ন «» দখিনের দুয়ার উম্মোচনে ফরিদগঞ্জে আনন্দ র‍্যালী «» আব্দুল্লাহপুরে এনা পরিবহনের বাস চাপায় মৃত্যু পথযাত্রী নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী সাআ’দ।

টেকনাফে উপজেলায় একাধিক ভারী বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে বিভিন্ন গ্রামাঞ্চল প্লাবিত

নুরুল আলম,টেকনাফঃকক্সবাজার কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলায় টানা দু’দিনে ভারী বর্ষণে বিভিন্ন ইউনিয়নে গ্রামাঞ্চল সহ স্কুল কলেজ প্লাবিত হয়েছে। ২৮ জুলাই টেকনাফ সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান শাহাজাহান মিয়া ও ৪নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য আজিম উল্লাহ সদরের নতুন পল্লানপাড়া পানি বন্দী হয়ে পড়া স্থান পরিদর্শন করেন। যে সব এলাকা প্লাবিত হলো টেকনাফ সদর ইউনিয়নের নতুন পল্লানপাড়া, দক্ষিণ লেঙ্গুঁর বিল, হাতিয়ার ঘোনা, মহেশখালীয়া পাড়া, ডেইল পাড়া, নাজির পাড়া, শীল বনিয়া পাড়া, টেকনাফ পৌরসভার টেকনাফ সরকারী কলেজসহ ৪ নং ওয়ার্ড ইসলামাবাদ, দক্ষিণ জালিয়া পাড়া, কলেজ পাড়া ও হ্নীলা ইউনিয়নের রঙ্গিখালীসহ আরো অনেক এলাকা অতি বৃষ্টি ও পাহাড়ী ঢলে প্লাবিত হয়েছে। এছাড়াও সাবরাং, শাহপরীর দ্বীপ, সেন্টমার্টিন, হোয়াইক্যং ও বাহার ছড়া ইউনিয়নের কিছু কিছু গ্রামাঞ্চল টানা বৃষ্টি ও পাহাড়ে ঢলে প্লাবিত হয়েছে বলে জানা গেছে। ক্রাইম নিউজ ঢাকা সরজমিনে দেখা যায়, ভারী বর্ষণের কারণে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় পানি বেড়ে যায়। নাফ নদীতে পাহাড়ে ঢলের কারণে বিভিন্ন গ্রামাঞ্চল সহ তীরবর্তী এলাকার ঘর বাড়ী ও স্কুল কলেজ সহ নানাস্থানে বন্যাকবলিত হয়ে পড়েছে।এতে করে এসব গ্রামাঞ্চল ও তীরবর্তী এলাকার মানুষজন পানি বন্দী হয়ে নানা সমস্যায় পড়েছে এবং হ্নীলা ইউনিয়ন ৪নং ওয়ার্ড পর্যায়ে এক পরিবারের ছেলে মেয়ে পাহাড় ধসে পাঁচ জন মৃত্যু হয়েছে। এই পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় অতি বৃষ্টি ও পাহাড়ে ঢলে এসব এলাকা ও গ্রামাঞ্চল গুলো প্লাবিত হচ্ছে মনে করছেন পানি বন্দী এসব পরিবার গুলো। সেই সাথে বন্যাজনিত দূর্ঘটনা এড়াতে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে এলাকায় এলাকায় মাইকিং করা হয়। পাহাড়ের ঝুঁকিপূর্ণ স্থানে বসবাসরত জনসাধারণকে নিরাপদ আশ্রয়স্থলে চলে আসার জন্য আহবান করা হয়েছে।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ