,


শিরোনাম:
«» কক্সবাজার টেকনাফের এডভোকেট আব্দুর রহমান ইয়াবাসহ তুরাগে পুলিশের জালে ধরা। «» জিএম কাদেরের ফোন ছিনতাই করে ২৩ হাজার টাকা বিক্রি, বসুন্ধরা মার্কেট থেকে ৮ দিন পর খোলা ফোন উদ্ধার। «» শেরে-বাংলা নগরে প্রশাসনকে মাসোহারা দিয়েই চলছে সরকারি দপ্তরের গাড়ির তেল চুরি «» উত্তরায় কিশোর গ্যাংয়ের ছিনতাইয়ের কবলে পথচারীরা। «» আব্দুল্লাহপুরের তালাবদ্ধ গরুর সিকল কেটে থানায় এনে চাঁদা আদায় ক্ষুব্দ গরুর মালিক  «» ‘পড়ি বঙ্গবন্ধুর বই, সোনার মানুষ হই ‘-শীর্ষক সেরা পাঠকদের পুরষ্কার বিতরণী «» মহানন্দা নদীতে যূবকের রহস্যজনক মৃত্যু হস্তক্ষেপ নেই দায়িত্বশীলদের «» জেলা পুলিশ চাঁপাইনবাবগঞ্জ’র মাস্টার প্যারেড সম্পন্ন «» দখিনের দুয়ার উম্মোচনে ফরিদগঞ্জে আনন্দ র‍্যালী «» আব্দুল্লাহপুরে এনা পরিবহনের বাস চাপায় মৃত্যু পথযাত্রী নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী সাআ’দ।

ছাতকে লটারির কথা বলে ১লক্ষ ৫ হাজার ৫’শত টাকা হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারক

সেলিম মাহবুব,ছাতক(সুনামগঞ্জ)থেকেঃ ছাতকে লটারি লেগেছে প্রলোভন দেখিয়ে এক যুবকের কাছ থেকে হাতিয়ে নিয়েছে ১লক্ষ ৫ হাজার ৫’শত টাকা। ১৭ জুলাই শনিবার সন্ধ্যার দিকে গোবিন্দগঞ্জ পয়েন্টে ঘটনাটি ঘটেছে। ভুক্তভোগী যুবক স্থানীয় গোবিন্দনগর গ্রামের মৃত এস, এ গোলাম মোস্তফা’র পুত্র ফয়জ্জুল্লাহ ( ২১) জানায় তার ব্যবহিত ০১৬০৮৩১১৯৮৫ নাম্বারে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তি ০১৬০৮৫৫৫৩৫৩ নাম্বার থেকে ফোন দিয়ে এয়ারটেল অফিসের ম্যানেজার পরিচয়ে ৫ লক্ষ টাকার লটারি লেগেছে বলে জানায় এই টাকা গুলো পেতে ঘন্টার মধ্যে ১লক্ষ ৫ হাজার ৫’শত টাকা পাঠানোর কথা বলে। টাকা পাঠানোর সাথে সাথে তাকে তার ব্যক্তিগত একাউন্টে জমা দেওয়া হবে বলে জানায় প্রতারক। টাকার লোভে পরে সে স্থানীয় গোবিন্দগঞ্জ পয়েন্টে গোলচত্বর পাশে মখবুল টেলিকমে গিয়ে প্রতারকের দেওয়া নাম্বারে টাকা পাঠাতে বলে। তার কথা অনুযায়ী ব্যবসায়ী মখবুল হোসেন প্রতারণায় শিকার ফয়জ্জুল্লহ’র দেয়া ০১৯১৭৪১১৯৬৮ – ০১৯১৭৪১২৭৭৫ নাম্বারে মখবুল টেলিকমে থেকে বিকাশ এজেন্ট ও পার্সোনাল বিভিন্ন নাম্বার থেকে ৫৬,৫০০ টাকা এবং নগদ এজেন্ট পার্সোনাল নাম্বার থেকে ০১৬০৮৫৫৫৩৫৩ নাম্বার ও ০১৬৮৫৫৫৩৫১ নাম্বারে ৪৯,০০০ হাজার টাকা পাঠায়। টাকা পাঠানোর সাথে সাথে ব্যবসায়ী মখবুল হোসেন ফয়জুল্লাহ কে তার টাকা দিতে বলে তখন সে টাকা দিতে পারে না মূলত তার কাছে নগদ টাকা নেই। বিষয় টি মখবুল হোসেন তার আত্বীয় স্বজন কে অবগত করেন। ফয়জ্জুল্লার আত্বীয় লায়েক মিয়া তার দোকানে এসে তিনি টাকার জামিন হয়ে কাজী টেলিকমের ব্যবসায়ী নজরুল ইসলাম, স্থানীয় লিয়ন মিয়া, এনাম আহমদ, ফয়েজ আহমদ, সুজেল, সুজন তালুকদারসহ উপস্থিতি জনের সামনে নগদ ২০ হাজার টাকা পরিশোধ করে বাকী টাকা পরিশোধ করা হবে বলে ব্যবসায়ী মখবুল হোসেন কে শান্তনা দেন।ঐদিন রাতেই প্রতারনায় শিকার হওয়া ফয়েজ্জুল্লাহ’র বড় ভাই মোঃ ইমাদ উল্লাহ ছাতক থানায় হাজির হয়ে উক্ত বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য অজ্ঞাতনামা ব্যক্তির নাম্বার সহকারে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ