,


শিরোনাম:
«» ক্ষতিগ্রস্ত ৩৩ দোকান মালিকরা পেলেন প্রধানমন্ত্রীর অনুদান «» যৌতুক না পেয়ে নির্যাতনের অভিযোগ, গৃহবধূকে মারধর «» তুরাগে ১৫০টি দোকানের বিদ্যুৎ বিল মাসে ৭০০ টাকা দেখিয়ে প্রায় ৫ লক্ষ টাকা আত্মসাৎকারী নামধারী নেতা গ্রেফতার। «» তুরাগে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের নতুন সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রম শুরু «» তুরাগে ২ বছরের শিশু ধর্ষণ : ধর্ষক মামুন আটক। «» ইদ-ই-মিলাদুন্নবি উপলক্ষে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের নিয়ে দোয়া ও আলোচনা সভার আয়োজন করেছে স্বপ্নালোড়ন বাংলাদেশ «» কক্সবাজার টেকনাফের এডভোকেট আব্দুর রহমান ইয়াবাসহ তুরাগে পুলিশের জালে ধরা। «» জিএম কাদেরের ফোন ছিনতাই করে ২৩ হাজার টাকা বিক্রি, বসুন্ধরা মার্কেট থেকে ৮ দিন পর খোলা ফোন উদ্ধার। «» শেরে-বাংলা নগরে প্রশাসনকে মাসোহারা দিয়েই চলছে সরকারি দপ্তরের গাড়ির তেল চুরি «» উত্তরায় কিশোর গ্যাংয়ের ছিনতাইয়ের কবলে পথচারীরা।

পায়ে হেটে 3600ফুট উচ্চতার চ্যালেঞ্জ জয় করলেন রেজোয়ান আলী কয়েছ সহ ২৫জন

সেলিম মাহবুব, ছাতকঃ সিলেটের বালাগঞ্জ উপজেলার দেওয়ানবাজার ইউনিয়নে’র শিওরখাল গ্রামের সামাজসেবক ও মানবাধিকার কর্মী রেজোয়ান আলী কয়েছ, স্ব-পরিবারে বসবাস করেন লন্ডনে, কিন্তু বিলেতে থেকেও কখনো ভুলতে পারেননি মাতৃভূমির টান বাংলাদেশকে, দেশের মানুষের কল্যাণে সহোযোগিতার হাত বাড়ান। মানবতার কল্যাণে তহবিল সংগ্রহের উদ্দেশ্যে সুনামগঞ্জে একটি মানবিক হাসপাতাল অবিরত রাখার সহযোগিতায় ও পল্লী অঞ্চলের অসহায় গর্ভবতী মহিলাদের চিকিৎসা সেবার সহযোগিতায়। রেজওয়ান আলী কয়েছ সহ রোরাল ডেভেলপমেন্ট (RDF) এর কর্মী তালহা চৌধুরী সহ ২৫ জনের লন্ডনে ৩৬০০ ফুট উচ্চতার চ্যালেঞ্জ জয় করেছেন। শনিবার (০২ জুলাই ২০২১) লন্ডনের দ্বিতীয় উঁচু পাহাড় mount snowdon প্রায় ৩৬০০ ফুট উচ্চতা পায়ে হেটে উপরে উঠেন, আবার পায়ে হেটে হেটে নিচে নেমে চ্যালেঞ্জটি জয় করেছেন। তালহা চৌধুরী একজন সাবেক সাইন্টিস্ট, তিনি সিলেটের জগন্নাথপুর উপজেলার পাটলী চান্দপুর গ্রামে কৃতিসন্তান। তিনি সবসময় অসহায় দরিদ্র মানুষের সেবা দিতে এভাবেই UK এর সর্বোচ্চ উচ্চ পাহাড় (Ben Nevis) প্রায় ৪০০০ ফিট উচ্চতা সহ

আরও অনেক চেলেঞ্জ জয় করেছেন। RDF Maternity Hospital সহ আরো অন্যান্য সংস্থা টিকিয়ে রাখতে অবিরাম সাহায্যের হাত বাড়িয়ে যাচ্ছেন। সমাজকর্মী রেজোয়ান আলী কয়েছ বলেন, আমি মানবতার সেবায় সেই সাহায্যে অংশগ্রহণ করতে পেরে নিজেকে গর্বিত মনে করছি। কয়েছ আরো বলেন, এধরণের একটি মানবিক হাসপাতাল চালিয়ে যাওয়ার জন্য, চেলেঞ্জ জয়ের সম্পূর্ণ টাকা সুনামগঞ্জের সেই হাসপাতালে ব্যয় করা হবে। যাহাতে দুস্ত ও অসহায় রোগীদের বিশেষ করে গর্ভকালীন সময়ে তাদেরকে চিকিৎসা সেবা দেওয়া হয়। চ্যালেঞ্জটিতে রেজওয়ান আলী কয়েছের সাথে ছিলেন- রফি মিয়া, মোহাম্মদ আলী, ইকবাল হছেইন, সাহেদ মিয়া (লুতফুর) নজরুল ইসলাম, ইকবাল হোসেইন, রায়হান উদ্দিন, জাকির মিয়া, মোহাম্মদ হামজা, সাফওয়ান, নিয়াজ, আবু ইব্রাহিমসহ অন্যান্যরা।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ