,


শিরোনাম:
«» ক্ষতিগ্রস্ত ৩৩ দোকান মালিকরা পেলেন প্রধানমন্ত্রীর অনুদান «» যৌতুক না পেয়ে নির্যাতনের অভিযোগ, গৃহবধূকে মারধর «» তুরাগে ১৫০টি দোকানের বিদ্যুৎ বিল মাসে ৭০০ টাকা দেখিয়ে প্রায় ৫ লক্ষ টাকা আত্মসাৎকারী নামধারী নেতা গ্রেফতার। «» তুরাগে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের নতুন সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রম শুরু «» তুরাগে ২ বছরের শিশু ধর্ষণ : ধর্ষক মামুন আটক। «» ইদ-ই-মিলাদুন্নবি উপলক্ষে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের নিয়ে দোয়া ও আলোচনা সভার আয়োজন করেছে স্বপ্নালোড়ন বাংলাদেশ «» কক্সবাজার টেকনাফের এডভোকেট আব্দুর রহমান ইয়াবাসহ তুরাগে পুলিশের জালে ধরা। «» জিএম কাদেরের ফোন ছিনতাই করে ২৩ হাজার টাকা বিক্রি, বসুন্ধরা মার্কেট থেকে ৮ দিন পর খোলা ফোন উদ্ধার। «» শেরে-বাংলা নগরে প্রশাসনকে মাসোহারা দিয়েই চলছে সরকারি দপ্তরের গাড়ির তেল চুরি «» উত্তরায় কিশোর গ্যাংয়ের ছিনতাইয়ের কবলে পথচারীরা।

লকডাউনের ৪র্থ দিনে ছাতকে প্রশাসন ও আইন শৃঙ্খলা বাহিনী ছিল কঠোর অবস্থানে

সেলিম মাহবুব,ছাতকঃ ছাতকে কঠোর লকডাউনের ৪র্থ দিনে প্রশাসনের নজদারী ছিল চোখে পড়ার মতো। শহর সহ উপজেলার বিভিন্ন হাট-বাজারে দিনভর সেনাবাহিনী, র‌্যাব ও পুলিশের টহলের পাশাপাশি ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান পরিচালিত হয়েছে। বিধিনিষেধ অমান্যকারী ব্যক্তি ও ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ২৫টি মামলায় ২১ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয় ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে। বিভিন্ন অপরাধে ৬ জনকে আটক করে মুচলেখা ও জরিমানা আদায় করে ৪জন ছেড়ে দেয়া হলেও ডাক্তার না হয়ে রোগী চিকিৎসা পত্র প্রদান করার অপরাধে দু’ ফার্মেসী ব্যবসায়ীকে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার হাওলায় দেয়া হয়। রোববার দুপুরে ছাতক শহরে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মামুনুর রহমান। সরকারী বিধি-নিষেধ অমান্য করার অপরাধে ব্যক্তি ও ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান থেকে ১৬টি মামলায় ১৩ হাজার ৪শ’ টাকা জরিমানা আদায় করেন ভ্রাম্যমান আদালত।

এসময় কাঁচাবাজার, ফলের দোকান, হোটেল রেস্তোরা ব্যবসায়ীকে সর্তক দেয়া হয় এবং ফাম্মেসী ব্যবসায়ীকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ওষুধ বেচা-কেনা করার পরামর্শ দেয়া হয়। এর আগে সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত ছাতক শহর ও গোবিন্দগঞ্জে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান পরিচালনা করেন সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট তাপস শীল। লকডাউনে সরকারী বিধিনিষেধ অমান্য করা অপরাধে ৯ টি মামলায় ৭ হাজার ৬শ’ টাকা জরিমানা আদায় করেন ভ্রাম্যমান আদালত। এ সময় থানা পুলিশ, র‌্যাব ও সেনাবাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ