,


শিরোনাম:
«» তুরাগে গৃহবধু হত্যার অভিযোগে স্বামীর বন্ধু গ্রেফতার «» ভাড়া বাসায় অবস্থান করে স্বর্ণের দোকানে ডাকাতী করতো তারা’ «» ঈশ্বরদীতে ২০০ লিটার মদসহ গ্রেফতার ১ «» ঈশ্বরদীতে নবজাতক হত্যার অভিযোগ সাবেক স্বাস্থ্যকর্মীর আকলিমার বিরুদ্ধে «» সাংবাদিকতার দায় একমাত্র জনসাধারণের কাছে:তিতুমীর «» ঈশ্বরদীতে প্রণোদনার সার-বীজ প্রদানে স্বজনপ্রীতির অভিযোগ প্রকৃত কৃষকদের «» ঈশ্বরদীতে বালু খেকোদের কবলে বিলিন হাজার হেক্টর ফসলি জমি, দিশেহারা কৃষক «» ঠাকুরগাঁওয়ে বিশ্ব মৃত্তিকা দিবস পালিত র‍্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত «» চাঁপাইনবাবগঞ্জ সাবেক এমপি ও জেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদকের বাসভবনে হামলা «» চাঁপাইনবাবগঞ্জ কৃষকলীগের অনুষ্ঠানে সংঘর্ষে যুবলীগ নেতা মিনহাজ আহত

ঈশ্বরদী তে স্ত্রীর লালসায় প্রাণ গেলে স্বামীরঃআটক 2

ঈশ্বরদী প্রতিনিধিঃঅপমৃত্যু নয়, ঈশ্বরদীর আলোচিত ব্যবসায়ী শাকিলকে তার স্ত্রী মিম ও ছোট ভাই সাব্বির পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করেছে বলে জানাগেছে। আজ বুধবার এক প্রেস ব্রিফিং এ খুনের বিষয়ে বিস্তারিত জানিয়েছেন ঈশ্বরদী থানা প্রশাসন। ঘটনার বিবরনীতে জানাযায়, গত ২৮ মে ২০২১ রাত অনুমানিক সাড়ে দশটা নাগাদ ঈশ্বরদী থানা পুলিশ জানতে পারেন, ঈশ্বরদী থানাধীন রূপনগর কলেজপাড়া মহল্লায় জনৈক আহসান হাবীব এর বাড়ীর ২য় তলার ভাড়াটিয়া শাকিল আহমেদ (৩৫), পিতা-মোঃ ইব্রাহিম হোসেন প্রাং, সাং-দুবলাচারা (পতিরাজপুর), থানা-ঈশ্বরদী, জেলা-পাবনা খুন হয়েছে। সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে শাকিলের মরদেহ উদ্ধার করেন। ঈশ্বরদীতে স্ত্রীর লালসায় প্রাণগেল স্বামীর মৃতের স্ত্রী মিমের বরাত দিয়ে প্রশাসন জানান, ঘটনার দিন রাত ৮ ঘটিকার দিকে ২ জন অজ্ঞাতনামা ব্যক্তি শাকিলের ভাড়া বাসায় আসে এবং শাকিলকে ডাকাডাকি করলে শাকিলের স্ত্রী মিম ঘরের দরজা খুলে দেয়। সঙ্গে সঙ্গে অজ্ঞাতনামা আসামীদ্বয় জোরপূর্বক ঘরের মধ্যে প্রবেশ করে এবং মিমকে লাথি মারাতে মিম অজ্ঞান হয়ে যায়। জ্ঞান ফিরে রাত ৯ টা নাগাদ মিম তার হাত-পা বাঁধা অবস্থায় নিজেকে আবিস্কার করেন মেঝেতে। প্রায় ১ ঘন্টা যাবৎ চেষ্টারপর বাড়ীর মালিকের স্ত্রী মোছাঃ নাজমা বেগম ২য় তলায় শব্দ শুনে শাকিলের দরজার গিয়ে ঘরের দরজা বাহির থেকে ছিটকিনি লাগানো অবস্থায় দেখতে পান। নাজমা বেগম শাকিলের ঘরের দরজার ছিটকিনি খুললে ঘরের ভেতরে হাত,পা ও মুখ বাঁধা অবস্থায় মিমকে দেখে চিৎকার দিলে প্রতিবেশীরা ছুটে আসেন এবং শয়ন কক্ষে বিছানার উপর শাকিলের অসার দেহ চিৎ অবস্থায় পরে থাকতে দেখে তারা ঈশ্বরদী থানা পুলিশকে অবহিত করেন।

ঈশ্বরদীর আলোচিত ব্যবসায়ী মৃত শাকিল এ ঘটনার মৃত শাকিলের মামা মোঃ কোরবান আলী বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামীদের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করলে প্রশাসন ব্যবসায়ী শাকিল হত্যার রহস্য উদঘাটনে পুলিশ সুপার, পাবনা জনাব মোহাম্মদ মহিবুল ইসলাম খান, বিপিএম’র দিক নির্দেশনায় জনাব, মোঃ মাসুদ আলম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) ও জনাব,মোঃ ফিরোজ করিব, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, ঈশ্বরদী সার্কেল ঈশ্বরদী র নেতৃত্বে অফিসার ইনচার্জ মোঃ আসাদুজ্জামান, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোহাম্মদ হাদিউল ইসলাম সহ পুলিশের একটি চৌকশ টিম কাজ শুরু করেন। তারা বিভিন্ন তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে ২৪ ঘন্টার মধ্যেই ঘটনাটি উদঘাটনসহ ০২ জন আসামীকে গ্রেফতার করেন। তদন্ত সূত্রে জানা যায়, মৃত শাকিলের স্ত্রী মিমের সাথে শাকিলের ছোট ভাই সাব্বিরের (অবৈধ) প্রেমের সম্পর্ক ছিলো। স্ত্রী মিম ও সাব্বিরের পরকীয়ার বিষয়টি জোড়ালো হতে থাকলে মিমকে দেবর সাব্বিরের সাথে কথা বলতে নিষেধ করলেও সেটা অমান্য করে সাব্বিরের দেয়া একটি মোবাইল ফোন মিম লুকিয়ে রেখে গোপনে যোগাযোগ চালিয়ে যায় । তাদের এ সম্পর্ক ঘনিষ্টতায় রুপ নেয় শারিরীক সম্পর্কে। ঘটনার একপর্যায়ে শাকিল গত -১৯ মে স্বস্ত্রীক উপজেলার কলেজপাড়ার ঐ ভাড়া বাড়ীতে ওঠেন। এতে মিম সাব্বিরের সম্পর্কে ভাটা পড়লে তারা উভয়ই শাকিলের প্রতি ক্ষিপ্ত হয় এবং শাকিলকে হত্যার পরিকল্পনা করে। উক্ত পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী শাকিলের স্ত্রী মিম ২৭ মে রাত্রী অনুমান ১০.০০ ঘটিকার সময় পানির সঙ্গে তিনটি ঘুমের ট্যাবলেট গুড়া করে মিশিয়ে শাকিলকে খাওয়ায়। ২৮ মে সন্ধ্যার পর শাকিলের ভাড়া বাসায় সাব্বির এবং মিম পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী শোফাসেট এর কুশন বালিশ দিয়ে ঘুমন্ত অবস্থায় নাকে-মুখে বালিশ চাপা দিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করে শাকিলকে। হত্যার বিষয়টি ভিন্নখাতে প্রভাবিত করার লক্ষ্যে পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী আসামী সাব্বির ওড়না দিয়ে মিম’র দুই পা, শাকিলের পাঞ্চাবী দিয়ে মিম এর দুই হাত এবং মিমের পরিহিত ওড়না দিয়ে মিম এর মুখ বেঁধে বাহির দরজার নিকট রেখে দরজা বাহির থেকে ছিটকিনি লাগিয়ে চলে যায়। এই সংক্রান্তে আসামী মিম ও সাব্বিরকে গ্রেফতার করা হয়। সাব্বির এর নিকট থেকে মিমকে দেয়া উক্ত গোপন মোবাইল ফোনটি উদ্ধার করা হয়। মিম এর দোষ স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি ফৌঃ কাঃ বিঃ ১৬৪ ধারায় রের্কড করেছে আদালত। এই ঘটনার সাথে আরো কারো সম্পৃক্ততা আছে কি না, তা নিশ্চিত হওয়ার জন্য আসামী সাব্বির কে চারদিনের রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। দ্রুততম সময়ের মধ্যে মামলাটি তদন্ত সমাপ্ত করে বিজ্ঞ আদালতে অভিযুক্ত আসামীদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করা হবে।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ