,


শিরোনাম:
«» মহানন্দা নদীতে যূবকের রহস্যজনক মৃত্যু হস্তক্ষেপ নেই দায়িত্বশীলদের «» জেলা পুলিশ চাঁপাইনবাবগঞ্জ’র মাস্টার প্যারেড সম্পন্ন «» দখিনের দুয়ার উম্মোচনে ফরিদগঞ্জে আনন্দ র‍্যালী «» আব্দুল্লাহপুরে এনা পরিবহনের বাস চাপায় মৃত্যু পথযাত্রী নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী সাআ’দ। «» শিবগঞ্জে অস্ত্র ও ককটেল সহ ১৩ মামলার আসামি গ্রেপ্তারে র‍্যাব «» চাঁপাইনবাবগঞ্জে পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেসি কনফারেন্স সম্পন্ন «» ফরিদগঞ্জে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ৮ম শ্রেণির শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ,অভিযুক্ত যুবক আটক «» মুহাম্মদ স: কে নিয়ে বিজেপি নেতাদের কটুক্তির প্রতিবাদে তুরাগ ও উত্তরায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে অনুষ্ঠিত। «» দুই সন্তান নাজমুল ও সুপারেশ কর্তৃক বৃদ্ধা মা লাঞ্ছিত” থানায় অভিযোগ «» রাজধানীর তুরাগে ডোবা থেকে অজ্ঞাত তরুণীর মৃতদেহ উদ্ধার

দোয়ারাবাজারে অহেতুক মামলায় জড়িয়ে হয়রানী প্রতিকার পেতে সংবাদ সম্মেলন এক শিক্ষকের আকুতি

দোয়ারাবাজার প্রতিনিধিঃদোয়ারাবাজারে মোস্তফা কামাল নামের এক মাদরসা শিক্ষককে অহেতুক মামলায় জড়িয়ে হয়রানীর করা হচ্ছে। তিনি উপজেলার লক্ষ্মীপুর ইউনিয়নের আল-হাসেম একাডেমীর প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক ও এরুয়াখাই গ্রামের বাসিন্দা। দীর্ঘদিন ধরে একটা পক্ষ অহেতুক মামলায় তার নাম জড়িয়ে হয়রানী করে আসছে।মামলা থেকে তিনি অব্যাহতি পেতে প্রশাসনের দ্বারে দ্বারে ঘুরেও কোন প্রতিকার পাচ্ছেন না। স্থানীয়ভাবে একাধিক বিচার সালিসে মামলা থেকে ওই শিক্ষকের নাম কর্তনের কথা বলা হলেও আজোবধি তার নাম প্রত্যাহার করা হয়নি। রোববার দুপুরে উপজেলার লক্ষ্মীপুর ইউনিয়নের চকবাজারে এক সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে মাওলানা মোস্তফা কামাল বলেন, ‘ উপজেলার সুরমা ইউনিয়নের গিরিশনগর গ্রামের মৃত হাছন আলীর পুত্র আবদুছ সামাদ গত বছর আমার এক ভগ্নিপতি উপজেলার বাঁশতলা গ্রামের মাওলানা নুরুল আমিনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন। কেন বা কি কারণে মামলা দায়ের করেন তা আমার কিছুই জানা নেই। ভগ্নিপতির সাথে আমার কোন যোগসাজশও নেই। লেনদেন আছে কি না তাও জানা নেই। অথচ আমার নাম ওই মামলায় জড়িয়ে অহেতুক হয়রানী করছে। আমি জামিন নিয়ে আসার পরও আবদুস সামাদ আমার বাড়ি ও প্রতিষ্ঠানে এসে বিভিন্নভাবে আমাকে চাপ সৃষ্টি করে এবং তিনি আমার ভগ্ননিপতির কাছ থেকে টাকা উদ্ধারের সুবিধার্থে মামলায়৷ আমার নাম জড়িয়েছেন বলে প্রচার করেন। লিখিত বক্তব্যে তিনি আরও বলেন, অহেতুক আমাকে হেস্তনেস্ত করা হচ্ছে এবং আগামীতে আরও মামলা মোকদ্দমায় জড়িয়ে আমাকে হয়রানী করা হবে বলে হুমকি ধমকি দিয়ে আসছেন। আমি একজন শিক্ষক হিসেবে এসব হয়রানী থেকে আমাকে রক্ষা করার জন্য আমি প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত জনের মধ্যে ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, মোস্তফা কামাল একজন শিক্ষক। তিনি কোনভাবেই লেনদেনের সাথে জড়িত নয়। অহেতুক মামলায় জড়িয়ে তাকে হয়রানী করা হচ্ছে। ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি ও ব্যবসায়ী আনছার আলী বলেন, শিক্ষক মোস্তফা কামালকে মামলায় জড়িয়ে হয়রানী করা হচ্ছে। মামলার বাদী তাঁকে চিনেই না। আমরা অবিলম্বে মামলা হতে তাঁর নাম প্রত্যহারের দাবি জানাই। লক্ষ্মীপুর ইউপি চেয়ারম্যান আমীরুল হক বলেন, মোস্তফা কামাল একজন সহজ সরল শিক্ষক মানুষ। তাঁর নাম মামলায় জড়িয়ে অহেতুক হয়রানী করা হচ্ছে। সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সাবেক ইউপি সদস্য আলকাছ মিয়া, মোহাম্মদ আলী, হাসন আলী, রমজান আলী, নুর হোসেন, মাওলানা মামুন বিন মোস্তফা, বিলাল হোসেন প্রমুখ। এসময় গণমাধ্যম কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ