,


শিরোনাম:
«» তুরাগে গৃহবধু হত্যার অভিযোগে স্বামীর বন্ধু গ্রেফতার «» ভাড়া বাসায় অবস্থান করে স্বর্ণের দোকানে ডাকাতী করতো তারা’ «» ঈশ্বরদীতে ২০০ লিটার মদসহ গ্রেফতার ১ «» ঈশ্বরদীতে নবজাতক হত্যার অভিযোগ সাবেক স্বাস্থ্যকর্মীর আকলিমার বিরুদ্ধে «» সাংবাদিকতার দায় একমাত্র জনসাধারণের কাছে:তিতুমীর «» ঈশ্বরদীতে প্রণোদনার সার-বীজ প্রদানে স্বজনপ্রীতির অভিযোগ প্রকৃত কৃষকদের «» ঈশ্বরদীতে বালু খেকোদের কবলে বিলিন হাজার হেক্টর ফসলি জমি, দিশেহারা কৃষক «» ঠাকুরগাঁওয়ে বিশ্ব মৃত্তিকা দিবস পালিত র‍্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত «» চাঁপাইনবাবগঞ্জ সাবেক এমপি ও জেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদকের বাসভবনে হামলা «» চাঁপাইনবাবগঞ্জ কৃষকলীগের অনুষ্ঠানে সংঘর্ষে যুবলীগ নেতা মিনহাজ আহত

রাজধানী থেকে আন্তঃ জেলা মাদককারবারী চক্রের তিন সদস্য ফেন্সিডিলসহ গ্রেফতার

এস,এম,মনির হোসেন জীবনঃ রাজধানীর নিউমার্কেট এলাকায় একটি প্রাইভেটকারে তল্লাশী অভিযান চালিয়ে আন্তঃ জেলা মাদক কারবারী চক্রের তিন সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। গ্রেফতারকৃতরা হচেছ- মোঃ সবুজ মিয়া (৪০), মোঃ কামরুজ্জামান (৩৭), ও মোঃ আজিমুল (৩৭)। এসময় ২৮৫ বোতল ফেন্সিডিল সহ মাদক পরিবহনে ব্যবহৃত প্রাইভেটকারটি জব্দ করা হয়। র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-২) এর এএসপি (মিডিয়া) আবদুল্লাহ আল মামুন আজ শনিবার এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, গোপন সংবাদের ভিওিতে মাদকের একটি বড় চালান গাবতলী মিরপুর রোড হয়ে রাজধানীতে প্রবেশ করবে এমন গোপন তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-২ এর একটি আভিযানিক দল শুক্রবার দিবাগত রাত সাড়ে ৯ টার দিকে রাজধানীর নিউমার্কেট থানার মিরপুর রোডস্থ বলাকা শপিং কমপ্লেক্স এলাকায় বিশেষ চেকপোষ্ট স্থাপন করে একটি প্রাইভেটকারে তল্লাশী অভিযান চালায়। এসময় আন্তঃ জেলা মাদক কারবারী চক্রের সদস্য মোঃ সবুজ মিয়া (৪০), পিতা- মোঃ নাজিম উদ্দিন সরকার, রাজশাহী, মোঃ কামরুজ্জামান (৩৭), পিতা- মোঃ এরফান আলী, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, মোঃ আজিমুল (৩৭), পিতা-মৃত মনছুর আলী, চাঁপাইনবাবগঞ্জ’কে প্রাইভেটকারসহ গ্রেফতার করা হয়।

এএসপি আবদুল্লাহ আল মামুন আরও জানান, গ্রেফতারকৃত ব্যক্তিদের ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ ও তল্লাশীকালে তারা জানায় যে, প্রাইভেটকারে যাত্রী পরিবহনের আড়ালে মূলতঃ তারা মাদক পাচার করে থাকে। এসময় তারা প্রাইভেট কারে লুকিয়ে আনা মাদকের কথা স্বীকার করে এবং তল্লাশীকালে প্রাইভেট কারে পিছনের বক্সের মধ্য থেকে ২৮৫ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে ধৃত আসামীরা র‌্যাবকে আরো জানায়, তারা পারস্পারিক যোগসাজশে দীর্ঘ দিন ধরে দেশের বিভিন্ন সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে মাদক বহন করে নিয়ে আসে এবং তা রাজধানীর বিভিন্ন মাদক কারবারীদের নিকট হস্তান্তর করে। তাদের অন্যান্য সহযোগীরা অবৈধভাবে চোরাচালানের মাধ্যমে মাদক দেশে নিয়ে আসে এবং আইন-শৃংখলা বাহিনীর চোখ এড়িয়ে দেশের অভ্যন্তরে বিভিন্ন স্থানে মাদক পৌঁছানোর জন্য প্রাইভেটকার ব্যবহারের কৌশল অবলম্বন করে থাকে বলে জানায়। এবিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা গহন করা হয়েছে।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ