,


শিরোনাম:
«» প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চট্টগ্রামের ঐতিহাসিক পলোগ্রাউন্ডে ২৯টি উন্নয়ন প্রকল্পের শুভ উদ্বোধন করেন-জনসভায় জনসমুদ্রে পরিণত ছিল «» চাঁপাইনবাবগঞ্জসহ রাজশাহী বিভাগের আট জেলায় ধর্মঘট উপেক্ষা করে মাদ্রাসা মাঠে মানুষের ঢল «» ঠাকুরগাঁওয়ে পাক হানাদার মুক্ত দিবস উপলক্ষে র‍্যালি শোভা যাত্রা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত «» ক্ষতিগ্রস্ত ৩৩ দোকান মালিকরা পেলেন প্রধানমন্ত্রীর অনুদান «» যৌতুক না পেয়ে নির্যাতনের অভিযোগ, গৃহবধূকে মারধর «» তুরাগে ১৫০টি দোকানের বিদ্যুৎ বিল মাসে ৭০০ টাকা দেখিয়ে প্রায় ৫ লক্ষ টাকা আত্মসাৎকারী নামধারী নেতা গ্রেফতার। «» তুরাগে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের নতুন সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রম শুরু «» তুরাগে ২ বছরের শিশু ধর্ষণ : ধর্ষক মামুন আটক। «» ইদ-ই-মিলাদুন্নবি উপলক্ষে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের নিয়ে দোয়া ও আলোচনা সভার আয়োজন করেছে স্বপ্নালোড়ন বাংলাদেশ «» কক্সবাজার টেকনাফের এডভোকেট আব্দুর রহমান ইয়াবাসহ তুরাগে পুলিশের জালে ধরা।

গ্রামীন রাস্তায় তোরন নির্মাণ নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা

সেলিম মাহবুব,ছাতকঃছাতকে গ্রামীন রাস্তার মুখে তোরন নির্মাণকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের মধ্যে তীব্র উত্তেজনা বিরাজ করছে। গ্রামের রাস্তায় নিজ পরিবারের নামে তোরন নির্মাণ করতে গেল গ্রামবাসীর সাথে তোরন নির্মাণকারী পক্ষের বিরোধের জের ধরে এ উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। ইতিমধ্যে তোরন নির্মাণের উদ্যোগ নিলে প্রতিপক্ষরা বাধা দিয়ে নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দেয়। স্থানীয় একাধিক ব্যক্তি জানান, ছাতক-গোবিন্দগঞ্জ সড়কের খারগাঁও এলাকার সওজ’র সড়ক সংলগ্ন খারগাঁও গ্রামের রাস্তা নির্মিত হয় কয়েক যুগ আগে। রাস্তা নির্মাণের স্বার্থে ওই সময় গ্রামের অনেকেই নিজের ভুমি রাস্তার নামে মৌখিকভাবে দান করেছিলেন। কিন্তু রাস্তায় কাজে দেয়া এসব ভুমি স্ব-স্ব নামে রেকর্ড থেকে যায়। গত ২৯ মার্চ গ্রামের রাস্তায় নিজেদের নামে বাড়ির সম্মুখে একটি তোরন নির্মাণ করার উদ্যোগে নেয় রাস্তার নামে দেয়া এক ভুমিদাতা পক্ষের স্বজন আতাউর রহমান ও তার পরিবার। নিজেদের নামে গ্রামের রাস্তায় তোরন নির্মাণের উদ্যোগকে গ্রামের মানুষ মেনে নিতে পারেনি। তোরন নির্মাণ কাজে এসময় অনেকেই বাধা-বিপত্তি দিলে আতাউর রহমানের সাথে গ্রামবাসী বিরোধ সৃষ্টি হয়। এ নিয়ে প্রতিপক্ষের সাথে মোঃ আতাউর রহমানের কয়েক দফা বাক-বিতন্ডার সৃষ্টি হলে উভয় পক্ষের মধ্যে বিরাজ করতে থাকে চরম উত্তেজনা । তোরন নির্মাণে বাধা দেয়ায় আতাউর রহমান পরিবারের পক্ষ থেকে ছাতক থানায় একটি লিখিত অভিযোগও দেয়া হয়। প্রতিপক্ষকে চাঁদাবাজ উল্লেখ করে এবং ৫ লাখ টাকা চাঁদার দাবীতে প্রতিপক্ষরা তোরন নির্মাণে বাধা দিচ্ছে বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়। এ নিয়ে ইউপি চেয়ারম্যান অদুদ আলমসহ উভয় পক্ষকে নিয়ে ছাতক থানায় একটি সমোজতা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। স্থানীয়রা জানান, তোরন নির্মাণের আগে ওই রাস্তাটি খারগাঁও গ্রামের রাস্তা উল্লেখ করে গ্রামের মানুষ রাস্তা দিয়ে অবাদে চলাচল করতে পারবে এবং কোনদিন বাধা-বিপত্তির সম্মুখিন হবে না মর্মে একটি চুক্তিনামা করার কথা হয়েছে বৈঠকে। কিন্তু চুক্তিনামা না করেই ২৫ এপ্রিল আবারো তোরন নির্মাণ কাজ শুরু করেন আতাউর রহমান পক্ষ। এতে আবারো তীব্র উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। তোরন নির্মাণে বাধা দেয়া গ্রামের প্রতিপক্ষ লোকজন রাতে তোরন নির্মাণের নির্মাণ সামগ্রী তছনছ করে ফেলে। এ ঘটনায় আতাউর রহমানের পুত্র খালেকুজ্জামান বাদী হয়ে ছাতক থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলায় লুটপাটকারী ও চাঁদাবাজ উল্লেখ করে খারগাও গ্রামের আবুল কাশেম জাবেদ মিয়া, শিশু মিয়া, মান্নান মিয়া, আব্দুল আলীম, আব্দুস শহিদ, মোহাম্মদ আলী, গফফার মিয়া, জসিম উদ্দিন, হাকিম আলী, আসলম আলী, ওয়ারিছ আলী, ইউনুস আলী, সুন্দর আলী ও লালা মিয়াকে আসামী করা হয়েছে। গ্রামের লোকজন আরো জানান, মুল বিষয়কে আড়াল করে গ্রামের শান্তিপ্রিয় লোকজনের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।এ মামলায় আসামী করা হয়েছে গ্রামের প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী এবং প্রবাসীদেরও । গ্রামবাসী বিষয়টির সুষ্ঠ তদন্তের মাধ্যমে আইনী ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী জানান।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ