,


শিরোনাম:
«» রাজধানীর তুরাগে ডোবা থেকে অজ্ঞাত তরুণীর মৃতদেহ উদ্ধার «» উত্তরায় মা দিবস উপলক্ষে ৩০জন রত্নগর্ভা ‘মা’কে সম্মাননা «» উত্তরায় শিনশিন জাপান হাসপাতালে রোগীকে আটক রেখে নয় লাখ টাকা বিল। «» আবদুল আউয়াল ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের পক্ষ থেকে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ «» তুরাগ বাসীসহ দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন কৃষকলীগের সভাপতি মোঃ নাসির উদ্দিন «» চাঁপাইনবাবগঞ্জে সার ডিলারদের অনিয়মে জিম্মি কৃষক ও চাষিরা «» ঢাকা-আশুলিয়া মহাসড়কে গাড়ির চাপায় সাবেক পুলিশ সদস্য নিহত «» চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে প্রশাসনকে কঠোর হওয়ার আহ্বান জানান এমপি হাবিব হাসান। «» মশার অসহ্যকর যন্ত্রণায় তিক্ত তুরাগবাসী, দায়িত্বশীলরা বলছেন অসহায়ত্বের কথা «» তুরাগে মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করাকে কেন্দ্র করে পুলিশের উপর বস্তিবাসীর হামলা। 

১২ কোটি টাকার চার লাখ ইয়াবা উদ্ধার

নুরুল আলম,টেকনাফঃকক্সবাজারের টেকনাফে বার কোটি টাকা মূল্যমানের ৪ লাখ মরণ নেশা ইয়াবা উদ্ধার করেছে বাংলাদেশ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়ন (বিজিবি)। তবে এসময় কাউকে আটক করতে পারেনি বিজিবি। ১৫ এপ্রিল বৃহসপতিবার ভোরে টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা হ্নীলা ইউনিয়ন লেদা এলাকা থেকে ইয়াবার এ চালানটি আটক করা হয়। টেকনাফ ২ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্ণেল মোহাম্মদ ফয়সল হাসান খান প্রায় জানান- পবিত্র মাহে রমজান মাসে লকডাউনের মাঝে আইন শৃংখলা বাহিনী তোয়াক্কা না করে এ লেদা খাল দিয়ে মিয়ানমার হতে ইয়াবার একটি কোটি টাকার চালান বাংলাদেশে পাচার হতে পারে এমন গোপনীয় সংবাদের ভিত্তিতে লেদা বিওপি’র বিশেষ একটি টহলদল বেড়িবাঁধের পিছনে অবস্থান করে। আনুমানিক ভোর সাড়ে ৪ টার দিকে ৫-৬ জন লোক বিআরএম-১১ হতে ১.৬ কিলোমিটার দক্ষিণে লেদা খাল বিজিবি পোষ্ট হতে ৯০০ গজ পশ্চিম দিক দিয়ে ৪ টি ব্যাগ কাঁধে করে সীমান্ত পয়েন্ট নাফ নদীর কিনারা হয়ে লবন মাঠের দিকে আসতে দেখে। তখন ২ বিজিবির টহলদল মাদক কারবারী পাচারকারীদের দেখা মাত্রই চ্যালেঞ্জ করলে বিজিবি টহলদলের উপস্থিতি টের পেয়ে পাচারকারীরা বহনকৃত বস্তাগুলো ফেলে রাতের অন্ধকারের সুযোগ নিয়ে লেদা খালের আঁড় দিয়ে গ্রামের দিকে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে টহলদল ঘটনাস্থলে তল্লাশী অভিযান করে ইয়াবা পাচারকারীদের ফেলে যাওয়া ৪টি ব্যাগ উদ্ধার করে। উদ্ধারকৃত ব্যাগের ভেতর থেকে বারো কোটি টাকা মূল্যমানের ৪ লাখ টি ইয়াবা ট্যাবলেট জব্দ করা হয়। তিনি আরো জানান-পাচারকারী ও তাদের সহযোগীকে আটক করা সম্ভব হয়নি। তবে তাদেরকে সনাক্ত করার জন্য ব্যাটালিয়নের গোয়েন্দা কার্যক্রম চলমান রয়েছে এবং উদ্ধারকৃত মালিকবিহীন ইয়াবাহগুলো বর্তমানে ব্যাটালিয়ন সদরের ষ্টোরে জমা রাখা হয়েছে এবং যা উর্দ্ধতন কর্মকর্তা, চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের প্রতিনিধি, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও মিডিয়া কর্মীদের উপস্থিতিতে ধ্বংস করা হবে বলে জানিয়েছেন বিজিবি।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ