,


শিরোনাম:
«» দখিনের দুয়ার উম্মোচনে ফরিদগঞ্জে আনন্দ র‍্যালী «» আব্দুল্লাহপুরে এনা পরিবহনের বাস চাপায় মৃত্যু পথযাত্রী নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী সাআ’দ। «» শিবগঞ্জে অস্ত্র ও ককটেল সহ ১৩ মামলার আসামি গ্রেপ্তারে র‍্যাব «» চাঁপাইনবাবগঞ্জে পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেসি কনফারেন্স সম্পন্ন «» ফরিদগঞ্জে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ৮ম শ্রেণির শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ,অভিযুক্ত যুবক আটক «» মুহাম্মদ স: কে নিয়ে বিজেপি নেতাদের কটুক্তির প্রতিবাদে তুরাগ ও উত্তরায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে অনুষ্ঠিত। «» দুই সন্তান নাজমুল ও সুপারেশ কর্তৃক বৃদ্ধা মা লাঞ্ছিত” থানায় অভিযোগ «» রাজধানীর তুরাগে ডোবা থেকে অজ্ঞাত তরুণীর মৃতদেহ উদ্ধার «» উত্তরায় মা দিবস উপলক্ষে ৩০জন রত্নগর্ভা ‘মা’কে সম্মাননা «» উত্তরায় শিনশিন জাপান হাসপাতালে রোগীকে আটক রেখে নয় লাখ টাকা বিল।

সুনামগঞ্জে ছুরিকাঘাতে শ্যালক খুনঃদুলাভাই,মা ও বোনসহ গ্রেফতার ৪

মোজাম্মেল আলম ভূঁইয়া-প্রতিনিধি,সুনামগঞ্জঃ সিলেটের সুনামগঞ্জে দুলাভাইয়ের ছুরিকাঘাতে শ্যালকের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। মৃত শ্যালকের নাম- রসিক মিয়া (২৯)। সে সুনামগন্জ জেলার দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার পূর্ব পাগলা ইউনিয়নের দামোধরতপী গ্রামের মৃত মোঃ শফিক মিয়ার ছেলে। গতকাল সোমবার (৫ এপ্রিল) রাত সাড়ে ৯টায় সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শ্যালক রসিক মিয়া মৃত্যু হয়। এঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ অভিযান চালিয়ে রাত ১১টায় ঘাতক দুলাভাই নাইজুল হক (৩৮), সৎ বোন ছামিনা বেগম (২৮), রিনা বেগম (২২) ও সৎ মা নুরুল নেছা (৬০) কে গ্রেফতার করেছে। তাদেরকে আজ মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) সকালে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে বলে জানা গেছে। তবে ঘাতক দুলাভাই নাইজুল হক সিলেটের সুনামগন্জ জেলার ছাতক উপজেলার খারাই গ্রামের জমশেদ আলীর ছেলে। পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে- জেলা দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার দামোধরতপী গ্রামের মৃত শফিক মিয়ার সম্পত্তির ভাগ ভাটোয়ারা নিয়ে দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্ত্রীর সন্তানদের মধ্যে বিরোধ চলছিল। তারই জের ধরে গতকাল সোমবার (৫ এপ্রিল) বিকালে দ্বিতীয় স্ত্রীর ছেলে রসিক মিয়া ও তৃতীয় স্ত্রীর মেয়ে সৎ বোন ছামিনা বেগমের মধ্যে পৈত্তিক সম্পত্তি নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। এঘটনাটি সন্ধ্যায় সৎ বোন ছামিনা বেগম তার স্বামী নাইজুল হককে জানালে সে উত্তেজিত হয়ে ধারালো ছুরি নিয়ে শ্যালক রসিক মিয়ার পেটে আঘাত করলে সে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। পরে এলাকাবাসীর সহযোগীতায় ঘটনাস্থল থেকে আশংকাজনক অবস্থায় শ্যালক রসিক মিয়াকে উদ্ধার করে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করার পর রাত সাড়ে ৯টায় তার মৃত্যু হয়। এঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ রাতেই অভিযান চালিয়ে ঘাতক দুলাভাই নাইজুল হক, সৎ বোন সামিনা বেগম, রিনা বেগম এবং সৎ মা নুরুল নেসাকে গ্রেফতার করে। ওই থানার ওসি কাজী মোঃ মুক্তাদির হোসেন এঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন- শ্যালককে হত্যার ঘটনায় থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে ঘাতক দুলাভাই, দুই সৎ বোন ও মাকে আদালতের মাধ্যমে কারাঘারে পাঠানো হয়েছে।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ