,


শিরোনাম:
«» উত্তরায় কিশোর গ্যাংয়ের ছিনতাইয়ের কবলে পথচারীরা। «» আব্দুল্লাহপুরের তালাবদ্ধ গরুর সিকল কেটে থানায় এনে চাঁদা আদায় ক্ষুব্দ গরুর মালিক  «» ‘পড়ি বঙ্গবন্ধুর বই, সোনার মানুষ হই ‘-শীর্ষক সেরা পাঠকদের পুরষ্কার বিতরণী «» মহানন্দা নদীতে যূবকের রহস্যজনক মৃত্যু হস্তক্ষেপ নেই দায়িত্বশীলদের «» জেলা পুলিশ চাঁপাইনবাবগঞ্জ’র মাস্টার প্যারেড সম্পন্ন «» দখিনের দুয়ার উম্মোচনে ফরিদগঞ্জে আনন্দ র‍্যালী «» আব্দুল্লাহপুরে এনা পরিবহনের বাস চাপায় মৃত্যু পথযাত্রী নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী সাআ’দ। «» শিবগঞ্জে অস্ত্র ও ককটেল সহ ১৩ মামলার আসামি গ্রেপ্তারে র‍্যাব «» চাঁপাইনবাবগঞ্জে পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেসি কনফারেন্স সম্পন্ন «» ফরিদগঞ্জে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ৮ম শ্রেণির শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ,অভিযুক্ত যুবক আটক

ইউপি নির্বাচনে ইয়াবা কারবারীদের ফরম নেওয়ার হিড়িকঃ সাধারণ প্রার্থীরা ধরাশয়ী

নুরুল আলম টেকনাফঃ আসন্ন নির্বাচনে ১১এপ্রিল টেকনাফ উপজেলার ৫টি ইউনিয়নের ইউপি নির্বাচনের ফরম বিতরণ শুরু হয়েছে।যা একটানা ১৭ মার্চ পর্যন্ত চলবে লড়াই।১৮মার্চ ফরম জমা নেওয়ার শেষ দিন।১৯মার্চ পর্যন্ত তিনি যাছাই বাছাই,২৪ মার্চ প্রত্যাহার ও প্রতি বারাদ্ধ বলে নির্বাচন অফিস জানান।এই নির্বাচনকে ঘিরে টেকনাফ সীমান্ত এলাকায় প্রার্থীদের মধ্যে দ্বিধা বিভক্ত হয়ে পড়েছে।একদিকে ইয়াবা কারবারী প্রার্থী অপরদিকে সৎ ও যোগ্য সাধারন প্রার্থী। এই দু’অংশ প্রার্থীদের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এদের মধ্যে ইয়াবা কারবারী প্রার্থীদের মধ্যে রয়েছে প্রচুর টাকা পাহাড় অন্য প্রার্থীদের রয়েছে সততা ও যোগ্যতা। প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়,প্রতিদিন সরকারী ছুটি ব্যতীত টেকনাফ উপজেলা নির্বাচন অফিসে ফরম নেওয়ার জন্য ছুটে আসছে শত শত ইউপি নির্বাচনের চেয়ারম্যান পদে। মেম্বার ও মহিলা মেম্বার প্রার্থীগন।এদের মধ্যে দেখা যায় দু-তৃতীয়াংশ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত শীর্ষ ইয়াবা প্রার্থী। এদের মধ্যে গত নির্বাচনে নির্বাচিত মেম্বার ও চেয়ারম্যান প্রার্থী রয়েছে।যা নির্বাচিত হওয়ার বেশিরভাগ সময় কারাগারে কাটিয়েছে। এলাকার ভোটারগন তাদেরকে দুর্দিনের করোনার মাঝে কিউ খোঁজ পায়নি. ।ইদানিং কারাগার থেকে জামিনে মুক্ত হয়ে আবারও মোটা অংকের টাকার মিশন নিয়ে ভোট ব্যাং কারার ভিত্তি মাঠ দখল করার জন্য ফরম নেওয়া শুরু করেছে।ফরম নেওয়ার জন্য এলাকা থেকে নামী দামী বিলাসবহুল গাড়ী আসা হাঁকিয়ে নির্বাচন অফিসে এসে ফরম নিচ্ছেন। অপর দিকে সাধারণত প্রার্থীগন নিজেদের কষ্টার্জিত পরিশ্রমের টাকা নিয়ে জনগনের খেতমত করার লক্ষ্য নিয়ে সাধারণ ভাবে ফরম নিয়ে যাচ্ছেন এমনকি সাধারণ ও সৎ ভোটারদের অভিমত যোগ্য প্রার্থীগন ইয়াবা কারবারীর প্রার্থীদেরকে পরাজিত করে জিততে পারবে কি? কেননা তাদের টাকার সাগরে এরা বেশে যাবে। সৎ ভোটারগন থেকে জানতে চাইলে তিনি প্রায় বলেন ,পূণরায় ইয়াবা ব্যবসায়ী প্রার্থীদেরকে নির্বাচিত করা হলে সীমান্ত উপজেলা টেকনাফ আবারো ইয়াবার ঘাটিতে পরিনত হবে মরবে নিরহ অসহায়ী পরিবার দঙ্গস হবে আগামী দিনে প্রজন্ম ফোরাম এবং স্মরাজ্য বিস্তার হবে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের।সাধারণ জনগন এদের সাথে যুদ্ধ করে জীবন যাপন করা বড় মসকিল হয়ে পড়বে। তাই ভোটারগন আসন্ন ইউপি নির্বাচনে ইয়াবা প্রার্থীদেরকে বর্জন করে সৎ ও যোগ্য প্রার্থীদেরকে নির্বাচিত করার জন্য অপরাপর ভোটারদেরকে আহবান জানাচ্ছেন।এর পাশাপাশি সরকারের কাছে ইয়াবা ব্যবসায়ী যেন প্রার্থী হতে না পারে তার ব্যবস্থা করার জন্য দাবী জানাচ্ছে। সূত্রে জানায় টেকনাফ উপজেলায় প্রতিটি নির্বাচনে ইয়াবার সাথে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদেরকে নির্বাচন অংশ নিতে বা পারে এধরনের একটি নির্দেশনা আসার কথা ছিল।কিন্ত এই পর্যন্ত এ ধরনের কোন নির্দেশনা টেকনাফ উপজেলা প্রশাসন ও নির্বাচন অফিসে এসে পৌঁছেনি বলে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের কর্মকর্তাগন জানিয়েছেন।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ