,


শিরোনাম:
«» কক্সবাজার টেকনাফের এডভোকেট আব্দুর রহমান ইয়াবাসহ তুরাগে পুলিশের জালে ধরা। «» জিএম কাদেরের ফোন ছিনতাই করে ২৩ হাজার টাকা বিক্রি, বসুন্ধরা মার্কেট থেকে ৮ দিন পর খোলা ফোন উদ্ধার। «» শেরে-বাংলা নগরে প্রশাসনকে মাসোহারা দিয়েই চলছে সরকারি দপ্তরের গাড়ির তেল চুরি «» উত্তরায় কিশোর গ্যাংয়ের ছিনতাইয়ের কবলে পথচারীরা। «» আব্দুল্লাহপুরের তালাবদ্ধ গরুর সিকল কেটে থানায় এনে চাঁদা আদায় ক্ষুব্দ গরুর মালিক  «» ‘পড়ি বঙ্গবন্ধুর বই, সোনার মানুষ হই ‘-শীর্ষক সেরা পাঠকদের পুরষ্কার বিতরণী «» মহানন্দা নদীতে যূবকের রহস্যজনক মৃত্যু হস্তক্ষেপ নেই দায়িত্বশীলদের «» জেলা পুলিশ চাঁপাইনবাবগঞ্জ’র মাস্টার প্যারেড সম্পন্ন «» দখিনের দুয়ার উম্মোচনে ফরিদগঞ্জে আনন্দ র‍্যালী «» আব্দুল্লাহপুরে এনা পরিবহনের বাস চাপায় মৃত্যু পথযাত্রী নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী সাআ’দ।

ষড়যন্ত্রের শিকার শরীয়তপুরের ইউনিয়ন মেম্বার নাজমা

শরীয়তপুর জেলার ডামুড্যা উপজেলার কনেশ্বর ইউনিয়নের মডেল মসজিদ নির্মান শ্রমিকদের দুইটি মোবাইল ফোন চুরির ঘটনায় প্রতিবন্ধি  কাদির নামে এক চোরকে চুরি হওয়া একটি মোবাইল সহ আটক করে ল্যাম্পপোষ্টের সঙ্গে রশি দিয়ে বেঁধে মারধর করার মিথ্যা অভিযোগ উঠেছে সংরক্ষিত ইউপি সদস্য নাজমা বেগমের বিরুদ্ধে। বিষয়টি জানার জন্য সরোজমিনে গেলে প্রত্যক্ষদর্শি নিধির দাস,আফাজ উদ্দিন,মোঃ জসিম,জাকির সহ অনেকে বলেন-মডেল মসজিদের শ্রমিকদের দুইটা মোবাইল চুরির ঘটনায় কাদির চৌকিদারকে ল্যাম্পপোষ্টের সাথে মডেল মসজিদের শ্রমিকরা বাধে ৷ নাজমা মেম্বার ঘটনাটি দেখে এগিয়ে অাসেন এবং কাদিরকে জনগনের গনধোলাইর হাত থেকে বাচানোর জন্য সবাইকে সরিয়ে তার নিজ হাতে একটি ধইনচার লাঠি নিয়ে কাদিরকে ভয় দেখান ৷ তখন কাদির একটি চুরি করছে বলে শিকার করেন এবং মোবাইলটি ফেরত দেন ৷ এই ঘটনায় নাজমা মেম্বার কাদিরকে কোন প্রকার মাইরধর করেননি শুধু ভয় দেখাইছেন ৷ ইউপি সদস্য নাজমা বেগম বলেন- আমি কাদেরকে বাঁধি নাই। কাদেরকে ল্যাম্পপোষ্টের সাথে শ্রমিকরা বানছে ৷ কাদের প্রতিবন্ধি হওয়ায়  আমি কাদেরকে গনধোলাইর হাত থেকে বাচানোর জন্য এগিয়ে যাই এবং ছোট একটা ধইনচার লাঠি নিয়ে মোবাইল চুরির কথা শিকারের জন্য ভয় দেখাই ৷ যাতে ভয়ে সব কিছু বলে দেয়। তখন কাদের ভয় পেয়ে চুরির কথা শিকার করে ৷ অথচ আমাকে মিথ্যাভাবে ফাসানোর জন্য কে বা কারা ভিডিও করে ফেসবুকে ছারলে কয়েকটি মিডিয়ায় তা আমার বিরুদ্ধে প্রচার করে ৷ যা সম্পূর্নভাবে আমাকে হেওপ্রতিপন্য করার উদ্দেশ্যে করা হয়েছে,আমি এর তিব্রপ্রতিবাদ জানাই ৷ মডেল মসজিদ শ্রমিক বাগের হাটের মোঃ জাকির হোসেন বলেন-আমাদের দুইটা মোবাইল চুরি হওয়ায় আমরা মোবাইলের সন্ধান করতে থাকি ৷ হটাৎ জানতে পারি কাদির চৌকিদারের কাছে অামাদের মোবাইল অাছে ৷ অামরা কাদির চৌকিদারকে ধরি এবং ল্যাম্পপোষ্টের সাথে বাধি ৷ তখন নাজমা মেম্বার কাদিরকে গনধোলাইর হাত থেকে বাচানোর জন্য এগিয়ে অাসেন এবং কাদিরকে ধইনচার লাঠি দিয়ে ভয় দেখিয়ে একটি মোবাইল উদ্ধার করেন ৷ কাদিরকে নাজমা মেম্বার কোন প্রকার অাঘাত করেননি ৷ মোবাইল চোর কাদির চৌকিদারের কাছে ল্যাম্পপোষ্টের সাথে বাধা এবং মাইরধরের বিষয় জানতে চাইলে বলেন-অামাকে ল্যাম্পপোষ্টের সঙ্গে নাজমা মেম্বার বান্দে নাই,অন্য মানুষেরা বানছে ৷ নাজমা মেম্বার অামারে হাতে একটা পিটান দিছে ৷ অামারে অামার বউ অার ভাই অনেক মারছে ৷ কনেশ্বর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান অানিছুর রহমান বলেন-ঘটনার দিন অামি ঢাকায় থাকার কারনে চুরির বিষয়টি মোক্তার চৌকিদার ও ধানকাঠি ইউনিয়নের সুমন মেম্বার অামাকে ফোন করে জানায় ৷ অামি ঢাকা থেকে এসে সবাইকে নিয়ে বসি এবং জানতে পারি মডেল মসজিদের শ্রমিকদের দুইটা মোবাইল চুরির ঘটনায় কাদির চৌকিদারকে ল্যাম্পপোষ্টের সাথে বাধে ৷ কাদির প্রতিবন্ধি হওয়ায় অামার সংরক্ষিত অাসনের মেম্বার সবাইকে মাইরধর করতে নিষেধ করেন ৷ কাদিরকে গনধোলাইর হাত থেকে বাচানোর জন্য একটি লাঠি দিয়ে ভয় দেখিয়ে কাদিরের কাছ থেকে চুরি হওয়া একটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করেন ৷ এখানে কোন প্রকার মাইরধরের ঘটনা ঘটেনি ৷ কিন্তু কাদিরকে ল্যাম্পপোষ্টের সাথে বাধা অবস্থায় নাজমা মেম্বার জিজ্ঞাসা করতেছে এমন একটি ভিডিও কে বা কারা ফেসবুকে ভাইরাল করলে নাজমা মেম্বারকে কোন অভিযোগ ছারাই থানায় নেয় এবং কয়েকটি মিডিয়ায় তা প্রচার করে ৷ যেটা সম্পূর্নভাবে নাজমা মেম্বারকে হেওপ্রতিপন্য করার উদ্দেশ্যে করা হয়েছে ৷ অামি এর তিব্রনিন্দা জানাই ৷ এই বিষয়ে ডামুড্যা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মর্তুজা আল মুঈদ বলেন-কনেশ্বর মডেল মসজিদের শ্রমিকদের দুইটি মোবাইল একজন প্রতিবন্ধি চুরি করে ৷ শ্রমিকরা ঐ প্রতিবন্ধি চোরকে ধরে ল্যাম্পপোষ্টের সাথে বাধে ৷ এসময় সংরক্ষিত অাসনের মহিলা মেম্বার নাজমা বেগম চোরকে মাইরধর করতে নিষেধ করেন এবং তিনি একটি লাঠি দিয়ে ভয় দেখিয়ে তার কাছ থেকে চুরি হওয়া একটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করেন ৷ নাজমা মেম্বার যেই কাজটি করেছেন তা ভাল করেছেন ৷ এই ঘটনায় নাজমা মেম্বারের বিরুদ্ধে চোরের ভাই একটি মামলা করে,যা সম্পূর্ন মিথ্যা ৷

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ