,


শিরোনাম:
«» কক্সবাজার টেকনাফের এডভোকেট আব্দুর রহমান ইয়াবাসহ তুরাগে পুলিশের জালে ধরা। «» জিএম কাদেরের ফোন ছিনতাই করে ২৩ হাজার টাকা বিক্রি, বসুন্ধরা মার্কেট থেকে ৮ দিন পর খোলা ফোন উদ্ধার। «» শেরে-বাংলা নগরে প্রশাসনকে মাসোহারা দিয়েই চলছে সরকারি দপ্তরের গাড়ির তেল চুরি «» উত্তরায় কিশোর গ্যাংয়ের ছিনতাইয়ের কবলে পথচারীরা। «» আব্দুল্লাহপুরের তালাবদ্ধ গরুর সিকল কেটে থানায় এনে চাঁদা আদায় ক্ষুব্দ গরুর মালিক  «» ‘পড়ি বঙ্গবন্ধুর বই, সোনার মানুষ হই ‘-শীর্ষক সেরা পাঠকদের পুরষ্কার বিতরণী «» মহানন্দা নদীতে যূবকের রহস্যজনক মৃত্যু হস্তক্ষেপ নেই দায়িত্বশীলদের «» জেলা পুলিশ চাঁপাইনবাবগঞ্জ’র মাস্টার প্যারেড সম্পন্ন «» দখিনের দুয়ার উম্মোচনে ফরিদগঞ্জে আনন্দ র‍্যালী «» আব্দুল্লাহপুরে এনা পরিবহনের বাস চাপায় মৃত্যু পথযাত্রী নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী সাআ’দ।

টেকনাফ সীমন্তে কোস্ট গার্ডের অভিযানে ৩৫ হাজার ইয়াবা উদ্ধার

নুরুল আলম টেকনাফঃ টেকনাফে পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ড দক্ষিণ জালিয়া পাড়া নাফ নদীর সংলগ্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৩৫ হাজার উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার ) ৬ই মার্চ কোস্ট গার্ড স্টেশন টেকনাফ কর্তৃক টেকনাফ পৌরসভার দক্ষিণ জালিয়া পাড়া নাফ নদী সংলগ্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ৩৫ হাজার মরণশীল ইয়াবা আটক করেছে আইন শৃংখলা বাহিনীর গোপনীয় সংবাদের ভিত্তিতে, রাত্রে বেলায় নাফ নদীতে সংলগ্ন এলাকা দিয়ে সমুদ্র পথে মায়ানমার হতে বাংলাদেশে ইয়াবা পাচার হবে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে টেকনাফ কোষ্টগার্ড স্টেশান লেঃ এম সালেহ আকরাম, এর নেতৃত্বে একটি দল নিয়ে উক্ত অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় টেকনাফ দক্ষিণ জালিয়া পাড়া এলাকায় নাফ নদী সংলগ্ন এলাকায় রাত আনুমানিক রাত ১২ টা দিকে ব্যাগসহ একজন লোক কে দেখতে পাওয়া যায়। তাদের গতিবিধি সন্দেহজনক মনে হলে তাকে থামার সংকেত দিলে। কোস্টগার্ড দলের উপস্থিতি টের পেয়ে সে হলুদ রংয়ের একটি শপিং ব্যাগ ফেলে সমুদ্র সংলগ্ন পেরা বন মধ্যে পালিয়ে যায়। উক্ত তলে তল্লাশী করে ৩৫ হাজর টি ইয়াবা উদ্ধারের পর টেকনাফ মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। আজ ৭ই মার্চ ২১) রবিবার টার সময় এক সংবাদ সম্মেলনে এই ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে তিনি টেকনাফ কোষ্টগার্ড স্টেশন লেঃ এম সালেহ আকরাম প্রায় বলেন, আসামী আটক করা সক্ষম হয়নাও কোষ্টগার্ড আইন শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণ, জননিরাপত্তা ব্যবস্তা পাশাপাশি বনদস্যুতা,ডাকাতি দমন ও মাদক নিয়ন্ত্রণ রোদে জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করে,নিয়মিত অভিযান অব্যাহত আছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ