,


শিরোনাম:
«» রাজধানীর তুরাগে ডোবা থেকে অজ্ঞাত তরুণীর মৃতদেহ উদ্ধার «» উত্তরায় মা দিবস উপলক্ষে ৩০জন রত্নগর্ভা ‘মা’কে সম্মাননা «» উত্তরায় শিনশিন জাপান হাসপাতালে রোগীকে আটক রেখে নয় লাখ টাকা বিল। «» আবদুল আউয়াল ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের পক্ষ থেকে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ «» তুরাগ বাসীসহ দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন কৃষকলীগের সভাপতি মোঃ নাসির উদ্দিন «» চাঁপাইনবাবগঞ্জে সার ডিলারদের অনিয়মে জিম্মি কৃষক ও চাষিরা «» ঢাকা-আশুলিয়া মহাসড়কে গাড়ির চাপায় সাবেক পুলিশ সদস্য নিহত «» চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে প্রশাসনকে কঠোর হওয়ার আহ্বান জানান এমপি হাবিব হাসান। «» মশার অসহ্যকর যন্ত্রণায় তিক্ত তুরাগবাসী, দায়িত্বশীলরা বলছেন অসহায়ত্বের কথা «» তুরাগে মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করাকে কেন্দ্র করে পুলিশের উপর বস্তিবাসীর হামলা। 

জগন্নাথপুর সড়কে ধসে পড়া ১৩কোটির টাকার সেতু পরিদর্শন করলেন সচিব

মোজাম্মেল আলম ভূঁইয়া-প্রতিনিধি,সুনামগঞ্জ: সুনামগঞ্জ-জগন্নাথপুর সড়কের কোন্দানালা খালের ওপর ধসে পড়া ১৩কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত সেতু পরিদর্শন করেছেন সড়ক পরিবহণ ও মহাসড়ক বিভাগের
সচিব নজরুল ইসলাম। আজ শুক্রবার (৫ মার্চ) দুপুরে ধরে পড়া সেতু পরিদর্শনের সময় সচিব বলেন- গার্ডার বসানোর সময় দূর্ঘটনা ঘটতেই পারে। তবে তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর জানা যাবে এর আসল কারণ কি। আপাদত এব্যাপারে কিছু
বলা সম্ভব না। কিন্তু কোন্দানালা সেতুটির গার্ডার ধসের ঘটনাটি দুঃখজনক।

তবে এনিয়ে আতংকিত হওয়ার কিছু নেই। এই সড়কের নির্মিত সেতুগুলোর কাজের মান নিশ্চিতে তদারকি আরো বাড়ানো হবে।
সুনামগঞ্জ-জগন্নাথপুর সড়কের কোন্দানালা খালে ধসে পড়া ১৩কোটি টাকার সেতু পরিদর্শনের সময় সচিবের সাথে আরো উপস্থিত ছিলেন- অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী তুষার কান্তি সাহা, তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী উৎফল সামন্ত, সুনামগঞ্জ
সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী জহিরুল ইসলাম, উপসহকারী
প্রকৌশলী মোস্তাফিজুর রহমান প্রমুখ। উল্লেখ্য, সুনামগঞ্জ-জগন্নাথপুর আঞ্চলিক মহাসড়কের পাগলা-আউশকান্দি-
রানীগঞ্জ পর্যন্ত ১১০কোটি টাকা ব্যয়ে ৭টি পিসি গার্ডার সেতু ও ১২৬কোটি টাকা ব্যয়ে ১টি বক্স গার্ডার সেতুর নির্মাণ কাজ করছে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান এমএম বিল্ডার্স। কিন্তু গত রবিবার রাতে কোন্দানালা খালের ওপর
নির্মানাধীন সময় ১৩কোটি টাকার সেতুর ৫টি গার্ডার ধসে পড়ে। এঘটনার প্রেক্ষিতে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়সহ সড়ক ও জনপথ বিভাগ ২টি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। বর্তমানে ধসে পড়া সেতুর তদন্ত কাজ চলছে। সেই সাথে
সেতুর ভাংগা অংশ অপসারণ করা হচ্ছে।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ