,


শিরোনাম:
«» উত্তরায় কিশোর গ্যাংয়ের ছিনতাইয়ের কবলে পথচারীরা। «» আব্দুল্লাহপুরের তালাবদ্ধ গরুর সিকল কেটে থানায় এনে চাঁদা আদায় ক্ষুব্দ গরুর মালিক  «» ‘পড়ি বঙ্গবন্ধুর বই, সোনার মানুষ হই ‘-শীর্ষক সেরা পাঠকদের পুরষ্কার বিতরণী «» মহানন্দা নদীতে যূবকের রহস্যজনক মৃত্যু হস্তক্ষেপ নেই দায়িত্বশীলদের «» জেলা পুলিশ চাঁপাইনবাবগঞ্জ’র মাস্টার প্যারেড সম্পন্ন «» দখিনের দুয়ার উম্মোচনে ফরিদগঞ্জে আনন্দ র‍্যালী «» আব্দুল্লাহপুরে এনা পরিবহনের বাস চাপায় মৃত্যু পথযাত্রী নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী সাআ’দ। «» শিবগঞ্জে অস্ত্র ও ককটেল সহ ১৩ মামলার আসামি গ্রেপ্তারে র‍্যাব «» চাঁপাইনবাবগঞ্জে পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেসি কনফারেন্স সম্পন্ন «» ফরিদগঞ্জে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ৮ম শ্রেণির শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ,অভিযুক্ত যুবক আটক

সৃষ্টিকুল’র মহান কর্তার ডাকে না ফেরার দেশে পারি জমালেন সাংবাদিক ফয়সাল আজম অপু’র পিতা আলহাজ্ব মহফিল উদ্দিন মাষ্টার

বিশেষ প্রতিবেদকঃ দেশের জনপ্রিয় স্যাটেলাইট টিভি (টেলিভিশন)র একমাত্র জেলা প্রতিনিধি, জাতীয় দৈনিক বাংলাদেশ বুলেটিন ও দি মুসলিম টাইমস’র চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি, সাংবাদিক ফয়সাল আজম অপু’র পিতা বিশিষ্ট সমাজসেবক ও শিক্ষানুরাগী ব্যক্তিত্ব আলহাজ্ব মহফিল উদ্দিন মাস্টার পরলোকগমন করেছেন (ইন্না-লিল্লাহী ওয়া ইন্নালিল্লাহী রাজেউন)। আমাদের সকল জীব জন্তুকে একমাত্র সৃষ্টিকর্তার ডাকে একদিন সময়/অসময়েই চলে যেতে বাধ্য করবেন যিনি, ঠিক তিনার ডাকেই আজ রবিবার (২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১খ্রি.) বেলা দুপুর ১টা ৪০ মিনিটে হাজ্বী সাহেব আমার শ্রদ্ধেয় ভাই বন্ধু ও সহকর্মী’র পিতা, আলহাজ্ব মহফিল উদ্দিন মাস্টার তিনি রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গতকাল হৃদযন্ত্রের সমস্যা জনিত কারণে ভর্তি হন। আজ দুপুরেই তিনি মৃত্যুবরণ করে সৃষ্টিকর্তার ডাকে চলে যাবেন পরপারে কে-ই-বা জানতো!। তার মৃত্যুর বিষয়টি একমাত্র ছেলে বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম কেন্দ্রীয় কমিটির ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক ফয়সাল আজম অপু নিশ্চিত করেছেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮০ বছর এবং এক ছেলে, ৪ মেয়ে স্ত্রীসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক আলহাজ্ব মহফিল উদ্দিন মাষ্টার। মরহুমের নামাজের জানাযা রবিবার মাগরিবের নামাজ শেষে সদর উপজেলার রানিহাটি ইউনিয়নের রামচন্দ্রপুর হাঁট কেন্দ্রীয় গোরস্থানে অনুষ্ঠিত হলে, তাকে সেখানেই চির নিদ্রায় সমাহিত করা হয়। অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক আলহাজ্ব মহফিল উদ্দিন মাস্টার দীর্ঘ ৩৯ বছর বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষকতা করেছেন। দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন তিনি, তার মধ্যে অন্যতম হৃদরোগেও আক্রান্ত ছিলেন বলে নিশ্চিত হওয়া যায়। কয়েকদিন পূর্বে অবস্থা অবনতি দেখা দেয়, গত দিন তার অবস্থা আশঙ্কাজনক অবস্থায় রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তীর কথা শুনতে পাই, ব্যাক্তিগত ভাবে দেখতে যাবার ইচ্ছে থাকলেও তা রয়ে গেলো অপূর্ণ। তবে শেষ কার্যের শেষাংশে কিছুটা হলেও কবরে মাটি দিতে পেরে, মনের ইচ্ছের ইচ্ছাটুকুন আংশিক হলেও পূর্ণ করতে পেরে শান্তি অনুভূত হয় আমার। এর আগে গত শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১খ্রি.) রামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয় হাজ্বী সাহেবকে। আলহাজ্ব মহফিল উদ্দিন মাস্টারের মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন তার সকল সহকর্মী ও অনুজ শিক্ষক, শিক্ষার্থী, অভিভাবকসহ সমাজের বিভিন্ন গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গসহ জেলা প্রশাসন ও অধিকাংশ রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ। সবশেষেও ভূমিকার ঐ টুকুন দিতে কৃপণতা করতে না পেরে এটাই দোয়া রঈলো পৃথিবীর সকল সন্তানের পিতামাতা/মাতাপিতাকে নিশ্চয়ই আল্লাহ্, নিজ গুনে সকল পাপগুলো ক্ষমা করে ক্ববুল করে জান্নাত নসিব করবেন, আ-মিন

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ