,


শিরোনাম:
«» তুরাগে গৃহবধু হত্যার অভিযোগে স্বামীর বন্ধু গ্রেফতার «» ভাড়া বাসায় অবস্থান করে স্বর্ণের দোকানে ডাকাতী করতো তারা’ «» ঈশ্বরদীতে ২০০ লিটার মদসহ গ্রেফতার ১ «» ঈশ্বরদীতে নবজাতক হত্যার অভিযোগ সাবেক স্বাস্থ্যকর্মীর আকলিমার বিরুদ্ধে «» সাংবাদিকতার দায় একমাত্র জনসাধারণের কাছে:তিতুমীর «» ঈশ্বরদীতে প্রণোদনার সার-বীজ প্রদানে স্বজনপ্রীতির অভিযোগ প্রকৃত কৃষকদের «» ঈশ্বরদীতে বালু খেকোদের কবলে বিলিন হাজার হেক্টর ফসলি জমি, দিশেহারা কৃষক «» ঠাকুরগাঁওয়ে বিশ্ব মৃত্তিকা দিবস পালিত র‍্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত «» চাঁপাইনবাবগঞ্জ সাবেক এমপি ও জেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদকের বাসভবনে হামলা «» চাঁপাইনবাবগঞ্জ কৃষকলীগের অনুষ্ঠানে সংঘর্ষে যুবলীগ নেতা মিনহাজ আহত

তারাকান্দায় নানা অভিযোগে অভিযুক্ত ইউপি চেয়ারম্যান রেজাউল করিম ও সচিব হেলাল উদ্দিন

স্টাফ রিপোর্টারঃ ময়মনসিংহের তারাকান্দা উপজেলার বালিখা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রেজাউল করিম ও সচিব হেলাল উদ্দিন এর বিরুদ্ধে দূর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। বিগত চার বছরে এলজিএসপি,টি আর,কাবিখা, কাবিটা, অতি দরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্হান কর্মসূচি (ইজিপিপি) সহ বিভিন্ন প্রকল্পে দূর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। এসব প্রকল্প সঠিকভাবে বাস্তবায়ন না করে নাম মাত্র কাজ করে,সিন্ডিকেটের মাধ্যমে বিল আত্মসাৎ এর অভিযোগ তুলেছেন ইউপি সদস্যরা । তারই ধারাবাহিকতায় চলতি ২০২০-২০২১ অর্থ বছরের অতি দরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্হান কর্মসূচি (১ম পর্যায় ইজিপিপি) প্রকল্পে সরকারী তালিকা অনুযায়ী চারশত বিরাশী জন শ্রমিক দেখালেও, মাঠে কাজ করেছেন মাত্র একশত ষাট জন শ্রমিক, যে কারনে সঠিকভাবে প্রকল্প বাস্তবায়ন সম্ভব হয়নি, এমন অভিযোগ করেছেন ইউপি সদস্য সহ প্রত্যক্ষদর্শী স্হানীয় এলাকাবাসী । সরেজমিনে খুঁজ নিয়ে জানা গেছে,ইউনিয়নের যেসব ওয়ার্ডে কাজ করা হয়েছে, সেসব ওয়ার্ডে সরকারি ভাবে, প্রকল্পের কাজের ধরন,মূল্য, মেয়াদকাল, শ্রমিক সংখ্যা সহ সাইনবোর্ড ডিসপ্লে করার কথা থাকলেও,আইন অমান্য করে কোন সাইনবোর্ড ডিসপ্লে করেননি কথিত ইউপি চেয়ারম্যান রেজাউল করিম ও সচিব হেলাল সহ সিন্ডিকেট সদস্যরা। এদিকে চারশত বিরাশী জন শ্রমিক তালিকাতে থাকলেও, মাঠে কাজ করেছেন একশত ষাট জন শ্রমিক, তবুও কিভাবে অসাধু সিন্ডিকেটের সহযোগীতায় ভূয়া একাউন্টের মাধ্যমে পূর্নাঙ্গ বিল পাস করে,সেই টাকা আত্মসাৎ করেন কথিত ইউপি চেয়ারম্যান রেজাউল করিম? এমন প্রশ্ন জনমনে! শুধু তাই নয় ভূয়া একাউন্টের মাধ্যমে অর্থ আত্নসাৎ এর ঘটনায় টাকা ভাগাভাগি নিয়ে কয়েকজন ইউপি সদস্যদের মধ্যে ৩০ শে জানুয়ারি বিকেলে ইউনিয়ন পরিষদে হাতাহাতির ঘটনাও ঘটে যা তদন্ত করলে প্রমাণ মিলবে । অভিযোগে আরও প্রকাশ, ইউপি সচিব হেলাল উদ্দিন দীর্ঘ দিন একই ইউনিয়নে থাকার কারণে বিভিন্ন দূর্নীতিতে জড়িয়ে পড়ে। জন্মনিবন্ধন,পরিচয় পত্র, বয়স্ক,বিধবা, প্রতিবন্ধী কার্ড সহ বিভিন্ন সেবা নিতে গুন হয় টাকা। ইউপি সচিব হেলাল উদ্দিন টাকা পেলেই কাজ হয়ে যায় দ্রুত, আর টাকা না পেলেই হয়রানির সীমা নেই, দিনের পর দিন ঘুরেও পাওয়া যায় না সেবা! বিভিন্ন অজুহাতে দায়িত্ব এড়িয়ে চলেন ইউপি সচিব হেলাল! এদিকে এ বিষয়ে তারাকান্দা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন ইউপি সদস্য আবু বক্কর সিদ্দিক, মোঃ আবুল হাসিম সহ জসিমউদ্দীনরা। এসব বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান রেজাউল করিম ও সচিব হেলাল অভিযোগ অস্বীকার করেন তবে অভিযোগের বিষয়ে তদন্তের দায়িত্বপ্রাপ্ত উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা বাবুল বলেন অচিরেই তদন্তের প্রতিবেদন দেওয়া হবে।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ