,


শিরোনাম:
«» তুরাগে গৃহবধু হত্যার অভিযোগে স্বামীর বন্ধু গ্রেফতার «» ভাড়া বাসায় অবস্থান করে স্বর্ণের দোকানে ডাকাতী করতো তারা’ «» ঈশ্বরদীতে ২০০ লিটার মদসহ গ্রেফতার ১ «» ঈশ্বরদীতে নবজাতক হত্যার অভিযোগ সাবেক স্বাস্থ্যকর্মীর আকলিমার বিরুদ্ধে «» সাংবাদিকতার দায় একমাত্র জনসাধারণের কাছে:তিতুমীর «» ঈশ্বরদীতে প্রণোদনার সার-বীজ প্রদানে স্বজনপ্রীতির অভিযোগ প্রকৃত কৃষকদের «» ঈশ্বরদীতে বালু খেকোদের কবলে বিলিন হাজার হেক্টর ফসলি জমি, দিশেহারা কৃষক «» ঠাকুরগাঁওয়ে বিশ্ব মৃত্তিকা দিবস পালিত র‍্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত «» চাঁপাইনবাবগঞ্জ সাবেক এমপি ও জেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদকের বাসভবনে হামলা «» চাঁপাইনবাবগঞ্জ কৃষকলীগের অনুষ্ঠানে সংঘর্ষে যুবলীগ নেতা মিনহাজ আহত

টেকনাফে তিনশতাধিক হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে বস্ত্র বিতরণ

 নুরুল আলম টেকনাফ: বুধবার, ৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২১ আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস” ভাষার মাস উপলক্ষে হতদরিদ্র তিন শতাধিক পরিবারের শিশু, নারী ও পুরুষদের বিভিন্ন ধরনের জামা- কাপড় বিতরণ করেছেন বাংলাদেশ স্কাউট উপজেলা শাখা। দুপুর সাড়ে ১২টায় উপজেলা সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের উপজেলার বিভিন্ন এলাকার তিনশতাধিক হতদরিদ্র পরিবারের শিশু, নারী ও পুরুষদের মাঝে এসব বস্ত্র তুলে দেওয়া হয়েছে। এসময় উপস্থিত ছিলেন-উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও বাংলাদেশ স্কাউট উপজেলা শাখার সভাপতি মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, সহকারি কমিশনার (ভূমি) আবুল মনসুর, উপজেলা একাডেমিক সুপারভাইজার নূরুল আবছার, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) সিফাত বিন রহমান, স্কাউটের সাধারণ সম্পাদক প্রবীর কান্তি মজুমদার প্রমূখ। বাংলাদেশ স্কাউটের সদস্যদের মাধ্যমে সমাজের বিত্তশালীদের কাছ থেকে পরিধেয় জামা-কাপড় সংগ্রহ করা হয়। এরপর এসব জামা-কাপড় ভালোভাবে ধৌত করে ইস্ত্রি করে বস্ত্রগুলো করা হয়েছে। বিতরণ অনুষ্ঠানে সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন বেসরকারি এনজিও সংস্থা একলাব ও স্কাউটের সদস্যবৃন্দরা । শাড়ি ও জামা হাতে পেয়ে উৎফুল্ল হতদরিদ্র পরিবারের নারী জমিলা বেগম (৪২), শিশু মোহাম্মদ আমিন (৮) ও শামসুন্নাহার (১০) । তারা বলেন, নতুন জামা পরার মতো সামর্থ্য তাদের নেই। হঠাৎ করে তাদের হাতে জামা-কাপড় তুলে দেওয়ায় খুবই ভালো লাগছে। এ প্রসঙ্গে টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইউএনও মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম বলেন, আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসকে সামনে রেখে বাংলাদেশ স্কাউটের শিক্ষার্থীদের তত্ত্বাবধানে এলাকার হতদরিদ্র পরিবারের শিশু নারী-পুরুষের মাঝে এসব জামা-কাপড় তুলে দিতে পেরে আমি সত্যিই আনন্দিত । তিনি আরও বলেন, কোভিড-১৯ এ হতদরিদ্র মানুষের আয়-রোজগার আগের তুলনায় অনেক কমে গেছে। এ অবস্থায় হতদরিদ্র পরিবারগুলোতে জামা-কাপড় কেনার মতো সামর্থ্য তেমন নেই। এই মুহূর্তে কিছু পরিবারের হাতে জামা-কাপড় তুলে দিতে পারায় সত্যি ভালো লাগছে। এভাবে সমাজের প্রতিটি মানুষকে এগিয়ে আসার জন্য আহ্বান জানান তিনি।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ