,


শিরোনাম:
«» রাজধানীর তুরাগে ডোবা থেকে অজ্ঞাত তরুণীর মৃতদেহ উদ্ধার «» উত্তরায় মা দিবস উপলক্ষে ৩০জন রত্নগর্ভা ‘মা’কে সম্মাননা «» উত্তরায় শিনশিন জাপান হাসপাতালে রোগীকে আটক রেখে নয় লাখ টাকা বিল। «» আবদুল আউয়াল ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের পক্ষ থেকে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ «» তুরাগ বাসীসহ দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন কৃষকলীগের সভাপতি মোঃ নাসির উদ্দিন «» চাঁপাইনবাবগঞ্জে সার ডিলারদের অনিয়মে জিম্মি কৃষক ও চাষিরা «» ঢাকা-আশুলিয়া মহাসড়কে গাড়ির চাপায় সাবেক পুলিশ সদস্য নিহত «» চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে প্রশাসনকে কঠোর হওয়ার আহ্বান জানান এমপি হাবিব হাসান। «» মশার অসহ্যকর যন্ত্রণায় তিক্ত তুরাগবাসী, দায়িত্বশীলরা বলছেন অসহায়ত্বের কথা «» তুরাগে মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করাকে কেন্দ্র করে পুলিশের উপর বস্তিবাসীর হামলা। 

সেন্টমার্টিন জিরো পয়েন্টে ছেঁড়া দ্বীপে ধর্মঘট

 নুরুল আলম ,টেকনাফঃ সেন্টমার্টিনে পরিবেশ-প্রতিবেশ রক্ষায় ছেঁড়াদ্বীপে পর্যটক নিষিদ্ধ করার প্রতিবাদে ধর্মঘট পালন করছে দ্বীপবাসী। রবিবার ৩১শে জানুয়ারী সকাল ৮ থেকে টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌরুট ট্রলার চলাচল বন্ধসহ দ্বীপের দোকানপাট বন্ধ রেখে এই ধর্মঘট পালন করেন। সেন্টমার্টিন সার্ভিস বোট মালিক সমিতি আয়োজনে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত এই ধর্মঘট থাকবে বলে জানা গেছে। এ ধর্মঘটে স্পিডবোট, গামবোট, ইজিবাইক (টমটম), ভ্যানগাড়ি, মোটরসাইকেল, দোকানপাট, বাজার কমিটি, হোটেল-কটেজ মালিক সমিতি ও কিছু স্থানীয় অংশ নিয়ে একাত্মতা ঘোষণা করেছেন। তবে এর আগে দ্বীপ রক্ষায় পরিবেশ অধিদপ্তরের জারি করাগণবিজ্ঞপ্তিে দ্বীপের বাংলাদেশ কোস্টগার্ড আলোকে ছেঁড়াদ্বীপে চলাচলের উপর নিষিদ্ধ ঘোষনা করেন।স্থানীয় ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতাদের দাবী, সেন্টমার্টিন দ্বীপের স্থানীয় বাসিন্দা ৯ হাজার। জীবিকার তাগিদে বিভিন্ন এলাকায় আরও ৩ হাজার মানুষ বসবাস করছেন সেন্টমার্টিন দ্বীপে। সাড়ে ছয় হাজারের বেশি মানুষের আয়-রোজগারের একমাত্র খাত হলো পর্যটন মৌসুম। বছরের চার মাস দ্বীপের মানুষ পর্যটকদের নির্ভর করে আয়-রোজগারের মাধ্যমে সংসার চালাচ্ছেন। কোস্টগার্ড কর্তৃক সেন্টমার্টিনের ছেঁড়াদিয়া যেতে মানা করার প্রতিবাদে অনির্দিষ্টকালের জন্য ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে ব্যবসায়ী সংগঠনসহ স্থানীয় জনসাধারণ। সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুর আহমদ জানান, ‘ছেঁড়াদ্বীপে পর্যটক নিষিদ্ধ করার প্রতিবাদে ধর্মঘট পালন করেছে দ্বীপবাসী। এখানে দ্বীপের বিভিন্ন পেশাজীবির মানুষ অংশ নিয়েছে। তিন দিনের মধ্যে তাদের দাবি, না মানলে বৃত্তম কর্মসূচি ঘোষনার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’ আইনের বাস্তবায়ন না থাকায় এ ধরনের ধর্মঘট পালন হচ্ছে উল্লেখ করে কক্সবাজারের পরিবেশ বিষয়ক সংস্থা ইয়ুথ এনভায়রনমেন্ট সোসাইটি (ইয়েস) প্রধান নির্বাহী এম ইব্রাহিম খলিল মামুন জানান, ‘সবার উচিত আগে দ্বীপকে বেচেঁ রাখা। সরকার আইনের কথা বলে আসলে স্থানীয় প্রশাসন সেটি বাস্তবায়ন করতে বারবার ব্যর্থ হচ্ছে। মানুষ অধিকার আদায়ে জন্য ধর্মঘট ডাকতে পারে, তাই বলে দ্বীপকে ধ্বংস মুখে ঠেলে দেওয়া যায়না। যদি দ্বীপ না বাচেঁ সেখানকার মানুষ যাবে কোথায়।’ নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কোস্ট গার্ডের এক কর্মকর্তা জানান, ‘দেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ সেন্টমার্টিনের অংশ ছেঁড়া দ্বীপে পর্যটক নিষিদ্ধের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে আমরা কাজ করছি। সরকারের নিদর্শনা অনুসারে কাজ বাস্তবায়নে চেষ্টা করছি।’ এদিকে দেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ সেন্টমার্টিনের অংশ ছেঁড়া দ্বীপে কিছু সামুদ্রিক প্রবাল জীবিত আছে। এই প্রবালগুলো সংরক্ষণের জন্য এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এর আগে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় গত ১২ অক্টোবর এক পরিপত্র জারি করার পর তা বাস্তবায়নে দায়িত্ব দেয় কোস্টগার্ডকে। এ ছাড়া পরিবেশ-প্রতিবেশ রক্ষায় সেন্টমার্টিনে ছয় ধরনের কার্যক্রম বন্ধ করার নির্দেশও দিয়েছে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ