,


শিরোনাম:
«» তুরাগে গৃহবধু হত্যার অভিযোগে স্বামীর বন্ধু গ্রেফতার «» ভাড়া বাসায় অবস্থান করে স্বর্ণের দোকানে ডাকাতী করতো তারা’ «» ঈশ্বরদীতে ২০০ লিটার মদসহ গ্রেফতার ১ «» ঈশ্বরদীতে নবজাতক হত্যার অভিযোগ সাবেক স্বাস্থ্যকর্মীর আকলিমার বিরুদ্ধে «» সাংবাদিকতার দায় একমাত্র জনসাধারণের কাছে:তিতুমীর «» ঈশ্বরদীতে প্রণোদনার সার-বীজ প্রদানে স্বজনপ্রীতির অভিযোগ প্রকৃত কৃষকদের «» ঈশ্বরদীতে বালু খেকোদের কবলে বিলিন হাজার হেক্টর ফসলি জমি, দিশেহারা কৃষক «» ঠাকুরগাঁওয়ে বিশ্ব মৃত্তিকা দিবস পালিত র‍্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত «» চাঁপাইনবাবগঞ্জ সাবেক এমপি ও জেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদকের বাসভবনে হামলা «» চাঁপাইনবাবগঞ্জ কৃষকলীগের অনুষ্ঠানে সংঘর্ষে যুবলীগ নেতা মিনহাজ আহত

পাবনায় দুই গ্রুপের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ, আহত ২০

ঈশ্বরদী প্রতিনিধিঃ পাবনায় পৌরসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগ ও স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থীর (আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী) সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয় পক্ষের অন্তত ২০জন আহত হয়েছেন। পৌর নির্বাচনের প্রচারণার শেষ দিন বৃহস্পতিবার (২৮ জানুয়ারি) রাতে শহরের স্বাধীনতা চত্বরে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামালের জনসভা শেষে এ সংঘর্ষ শুরু হয়। এ সময় স্বতন্ত্র প্রার্থীর কয়েকটি নির্বাচনী কার্যালয় ভাঙচুর করে নৌকার প্রার্থীর সমর্থকরা। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বৃহস্পতিবার রাতে শহরের স্বাধীনতা চত্বরে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর পক্ষে কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল জনসভা করেন। জনসভা শেষে ফেরার পথে শালগাড়িয়ায় কয়েকটি নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর করে নৌকার প্রার্থীর সমর্থকরা।

এ সময় স্বতন্ত্র প্রার্থীর লোকজন বাধা দিলে শুরু হয় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ। এতে অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে ৬ জনকে পাবনা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সংঘর্ষে পাবনা শহরের বিভিন্ন জায়গায় হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। খুব দ্রুত শহরে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। দোকান-পাট দ্রুত বন্ধ হয়ে যায়। স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকরা শালগাড়িয়া গোডাউন মোড়, হাসপাতাল রোডের, বাইপাস এলাকা ও সরদার পাড়ায় ভাঙচুর চালান। আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আলী মর্তুজা সনি বিশ্বাস ও স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক জেলা যুবলীগ সভাপতি শরিফ উদ্দিন প্রধানের লোকজনই শহরের প্রধান সড়ক আব্দুল হামিদ রোডের দুই দিকে দখল নেয়ার চেষ্টা করে। পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। বৃহস্পতিবার (২৮ জানুয়ারি) রাতে শহরে চরম উত্তেজনা ও আতঙ্ক বিরাজ করছিল। পাবনা সদর থানার ওসি নাসিম আহমেদ ক্রাইম নিউজ ঢাকা কে জানান, শহরের গুরুত্বপূর্ণ জায়গাগুলোতে পুলিশ অবস্থান নিয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ