,


শিরোনাম:
«» কক্সবাজার টেকনাফের এডভোকেট আব্দুর রহমান ইয়াবাসহ তুরাগে পুলিশের জালে ধরা। «» জিএম কাদেরের ফোন ছিনতাই করে ২৩ হাজার টাকা বিক্রি, বসুন্ধরা মার্কেট থেকে ৮ দিন পর খোলা ফোন উদ্ধার। «» শেরে-বাংলা নগরে প্রশাসনকে মাসোহারা দিয়েই চলছে সরকারি দপ্তরের গাড়ির তেল চুরি «» উত্তরায় কিশোর গ্যাংয়ের ছিনতাইয়ের কবলে পথচারীরা। «» আব্দুল্লাহপুরের তালাবদ্ধ গরুর সিকল কেটে থানায় এনে চাঁদা আদায় ক্ষুব্দ গরুর মালিক  «» ‘পড়ি বঙ্গবন্ধুর বই, সোনার মানুষ হই ‘-শীর্ষক সেরা পাঠকদের পুরষ্কার বিতরণী «» মহানন্দা নদীতে যূবকের রহস্যজনক মৃত্যু হস্তক্ষেপ নেই দায়িত্বশীলদের «» জেলা পুলিশ চাঁপাইনবাবগঞ্জ’র মাস্টার প্যারেড সম্পন্ন «» দখিনের দুয়ার উম্মোচনে ফরিদগঞ্জে আনন্দ র‍্যালী «» আব্দুল্লাহপুরে এনা পরিবহনের বাস চাপায় মৃত্যু পথযাত্রী নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী সাআ’দ।

জাউয়া বাজার ইউপি নির্বাচনে নৌকার মাঝি হতে চান শাহিন মিয়া তালুকদার

সেলিম মাহবুব,ছাতক আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ছাতক উপজেলার জাউয়া ইউনিয়নে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশায় কর্মীসভা উঠান বৈঠকের মধ্য দিয়ে জনগণের সাথে মতবিনিময় করে ব্যস্ত সময় পার করছেন, সাবেক ছাত্রনেতা, ছাতক উপজেলা যুবলীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক, ছাতক উপজেলা আওয়ামীলীগের আহ্বায়ক কমিটির অন্যতম সদস্য, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও শিক্ষানুরাগী শাহিন মিয়া তালুকদার। প্রতিদিনই ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রাম ও পাড়াসহ হাটবাজার এমনি মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়েও সবার সাথে কুশল বিনিময় করছেন তিনি। সাধারণ মানুষের সুবিধা-অসুবিধার খোঁজখবর নিচ্ছেন তরুণ এই আওয়ামীলীগ নেতা। দিন-রাত ছুটে চলছেন মানুষের দ্বারে দ্বারে। বিভিন্ন পাড়ায় সন্ধ্যার পরে উঠান বৈঠকেও বসে সাধারণ মানুষের কথা শুনছেন। আসন্ন ইউনিয়ন নির্বাচনকে ঘিরে ইউনিয়নের বিভিন্ন জায়গায় বেশ কয়েকজনের পোস্টার দেখা গেলেও প্রচার প্রচারণায় এখন পর্যন্ত এগিয়ে আছেন শাহীন মিয়া তালুকদার। যিনি ১৯৯৪ থেকে২০০০ সাল পযর্ন্ত বাংলাদেশ তথা উপমহাদেশ সর্ববৃহৎ প্রাচীন ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সিলেট সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের এ কনিষ্ঠ কর্মী এবং ২০০৬ ইং থেকে ২০১৪ পর্যন্ত উপজেলা যুবলীগের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক পদে নেতৃত্ব দিয়েছেন এবং ২০১৫ইং থেকে বর্তমানে উপজেলা আওয়ামীলীগের অন্যতম সদস্য ও তিনি একজন শিক্ষানুরাগী হিসেবে তপোবন কিন্ডারগার্টেনের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা, সাউথ ওয়েস্ট সালেহ আহমেদ স্কুল এন্ড কলেজের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য। আগামী ২০২১ সালের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে জাউয়াবাজার ইউনিয়নে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী তিনি। তিনি ছাত্র জীবন থেকে একজন প্রকৃত বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক, ত্যাগী নেতা হিসেবে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশা করেন। জাউয়া বাজার ইউনিয়নের বাসিন্দারা জানান ক্লিন ইমেজের জন্য স্থানীয় মানুষের মতে জনপ্রিয় একজন ব্যক্তি শাহিন মিয়া তালুকদার। দীর্ঘদিন রাজনীতি করলেও কারো সঙ্গে দন্দ্ব বা বিরোধ না থাকার কারণে সকলের পছন্দের প্রার্থী তিনি। তিনি সবাইকে নিয়ে এই ইউনিয়নে করোনা কালীন সময়ে অসহায় পরিবারের মধ্যে নগদ অর্থ ও খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছেন শাহিন মিয়া তালুকদার। স্থানীয় বাসিন্দারা জানান দল মত নির্বশেষে সব ধরনের মানুষের সাথে সুসম্পর্ক রয়েছে তাঁর। এলাকার মানুষের বিপদে আপদে পাশে থাকার কারণে সবাই তাঁকে পছন্দ করেন। তাই এলাকার মানুষই তাঁকে নির্বাচনে অংশ নিতে অনুরোধ করেছেন। আওয়ামীলীগের মনোনয়ন পেলে বিজয়ী হবেন বলে বিশ্বাস করেন এলাকার মানুষ ও তিনি। স্থানীয় বাসিন্দারা আরও জানান, তিনি অত্যন্ত ভদ্র, বিনয়ী ও সাদা মনের মানুষ, যার মধ্যে কোন কটুবাক্য অসাদাচারণ ও প্রতিহিংসা নাই। যেকোনো মানুষ বিপদে পড়লে তিনি সাধ্যানুযায়ী সাহায্য করার আপ্রাণ চেষ্টা করেন। আসন্ন জাউয়াবাজার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী শাহিন মিয়া তালুকদার বলেন আমি সিলেট সরকারি কলেজ ছাত্র থাকাকালীন সময় থেকে ছাত্র রাজনীতির সাথে জড়িত হই। সিলেট সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের মিছিল মিটিংয়ে নিয়মিত অংশগ্রহণ করেছি। ছাত্রদের অধিকার আদায়ে কাজ করেছি। পরবর্তীতে ছাতক উপজেলা যুবলীগের রাজনীতিতে সক্রিয় হই। ছাতক উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়কের দায়িত্ব পালন করেছি। বর্তমানে উপজেলা আওয়ামীলীগের আহ্বায়ক কমিটির অন্যতম সদস্য। দীর্ঘদিন আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত থাকায় মানুষের সমস্যা গুলো প্রত্যক্ষ করেছি। শাহীন মিয়া তালুকদার সুনামগঞ্জ আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক, ছাতক পৌরসভার টানা ৪ বারের নির্বাচিত মেয়র আবুল কালাম চৌধুরী ও সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক শামিম আহমেদ চৌধুরীর অত্যন্ত আস্থাভাজন হিসেবে পরিচিত। শাহিন মিয়া তালুকদার আরও বলেন ‘’প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নে অংশীদার হতে নৌকা প্রতীক নিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে দীর্ঘদিনের অবহেলিত জাউয়া বাজার ইউনিয়নকে একটি আধুনিক মডেল ও বৈষম্যহীন ইউনিয়ন রূপান্তরের চেষ্টা চালিয়ে যাবো এব প্রতিটি ওয়ার্ডকে বৈষম্যহীন ন্যায্য অধিকার পাবে। আমাদের মনে রাখতে হবে- আমরা সবাই জাউয়াবাজার ইউনিয়নবাসী। এখানে আমাদের মধ্যে কোনো আঞ্চলিকতা নেই, কোনো ভেদাভেদ নেই। কোন বিভেদ নাই, আমি ইউনিয়নবাসীর পাশে থেকে সাধারণ মানুষের কল্যাণে ও সুখেদুঃখে সাথী হয়ে রয়েছি এবং কাজ করে যেতে চাই। আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দল আমাকে নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন দিলে, জাউয়াবাজার ইউনিয়নবাসী আমাকে ভোট দিয়ে বিজয়ী করবেন বলে আমি শতভাগ আশাবাদী। জনগনের কাছে থেকে সার্বিক সহযোগিতা ও জনগণের পরামর্শকে কাজে লাগিয়ে জাউয়া বাজার ইউনিয়নকে বর্তমান সময়োপযোগী একটি আধুনিক মানের আধুনিক মডেল ইউনিয়ন গড়াই তাঁর ইচ্ছা। তিনি সবার দোয়া ও সহযোগিতা প্রত্যাশী। এই প্রথমবারের মতো আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে জাউয়াবাজার ইউনিয়ন থেকে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দীতার জন্য ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও আওয়ামীলীগ নেতা কর্মীদের সাথে নিয়ে গণসংযোগ শুরু করেছেন। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মনোনীত ও উন্নয়নের প্রতীক নৌকা মার্কা প্রত্যাশী বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক তরুণ রাজনীতিক ও শিক্ষানুরাগী শাহীন মিয়া তালুকদার বলেন,আমি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশার পাশাপাশি সাধারণ মানুষের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করছি। আমি ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে ও পাড়ায় পাড়ায় মানুষের সাথে দেখা করছি। তাদের সুবিধা-অসুবিধা নিয়ে উঠান বৈঠকের মাধ্যমে সরাসরি তাদের কথা শুনছি। আমি চাই, সুখ দুঃখের সাথী হয়ে আমার ইউনিয়নের সাধারণ মানুষের পাশে থাকতে চাই। তাদের সুখ-দুঃখকে ভাগাভাগি করে নিতে। জনগণ যদি আমাকে যোগ্য মনে করে তাদের প্রতিনিধিত্ব করার সুযোগ দেয়, তবে আমি আমার সাধ্যমত তাদের সেবা করার চেষ্টা করব, ইনশাল্লাহ। এছাড়া আমি আওয়ামী রাজনীতির মধ্য দিয়েই ছাত্রজীবন থেকে আওয়ামী পরিবারের সদস্য। তাই আগামী নির্বাচনে আমি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশা করছি।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ