,


শিরোনাম:
«» কক্সবাজার টেকনাফের এডভোকেট আব্দুর রহমান ইয়াবাসহ তুরাগে পুলিশের জালে ধরা। «» জিএম কাদেরের ফোন ছিনতাই করে ২৩ হাজার টাকা বিক্রি, বসুন্ধরা মার্কেট থেকে ৮ দিন পর খোলা ফোন উদ্ধার। «» শেরে-বাংলা নগরে প্রশাসনকে মাসোহারা দিয়েই চলছে সরকারি দপ্তরের গাড়ির তেল চুরি «» উত্তরায় কিশোর গ্যাংয়ের ছিনতাইয়ের কবলে পথচারীরা। «» আব্দুল্লাহপুরের তালাবদ্ধ গরুর সিকল কেটে থানায় এনে চাঁদা আদায় ক্ষুব্দ গরুর মালিক  «» ‘পড়ি বঙ্গবন্ধুর বই, সোনার মানুষ হই ‘-শীর্ষক সেরা পাঠকদের পুরষ্কার বিতরণী «» মহানন্দা নদীতে যূবকের রহস্যজনক মৃত্যু হস্তক্ষেপ নেই দায়িত্বশীলদের «» জেলা পুলিশ চাঁপাইনবাবগঞ্জ’র মাস্টার প্যারেড সম্পন্ন «» দখিনের দুয়ার উম্মোচনে ফরিদগঞ্জে আনন্দ র‍্যালী «» আব্দুল্লাহপুরে এনা পরিবহনের বাস চাপায় মৃত্যু পথযাত্রী নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী সাআ’দ।

সুনামগঞ্জে মাদ্রাসা ছাত্র নিখোঁজ ৬ দিনেও সন্ধান মেলেন

মোজাম্মেল আলম ভূঁইয়া- হাওরাঞ্চল প্রতিনিধি,সুনামগঞ্জ: সুনামগঞ্জে মাদ্রাসায় পড়–য়া এক ছাত্রকে খোঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। সে ৬দিন যাবত নিখোঁজ রয়েছে। ওই ছাত্রের নাম- আল আমিন (১৫)। সে জেলার ছাতক উপজেলার পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের বাগবাড়ি আবাসিক এলাকার বাসিন্দা ফারুক মিয়ার ছেলে ও বাগবাড়ি হাফিজিয়া মাদ্রাসার ছাত্র। আজ সোমবার ( ২৫ শে জানুয়ারী ) দুপুর ১২টা পর্যন্ত তার কোন সন্ধান মেলেনি। তাই নিখোঁজ ছাত্রের ব্যাপারে থানায় একটি সাধারণ ডায়রী করা হয়েছে। এব্যাপারে পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়- প্রতিদিনের মতো গত ২০ শে
জানুয়ারী সকাল ৯টায় নিজ বাড়ি থেকে বের হয়ে মাদ্রাসা পড়–য়া ছাত্র আল আমিন তার মাদ্রাসার উদ্দেশ্যে রওনা হয়। কিন্তু ক্লাস শেষে ওই মাদ্রাসার ছাত্র তার বাড়িতে আর ফিরেনি। এঘটনার পর সন্ধ্যায় বাবা ফারুক মিয়া ও পরিবারের লোকজন
মাদ্রাসায় খোঁজ নিয়ে জানতে পারে আল আমিন মাদ্রাসায় যায়নি। পরে তাদের নিকটতম আত্মীয়-স্বজন ও আশেপাশের এলাকায় খোঁজ নেওয়া হয়। কিন্তু ওই মাদ্রাসা ছাত্রের কোন সন্ধান না পেয়ে গত ২১ শে জানুয়ারী বিকেলে থানায়
একটি সাধারণ ডায়রি দায়ের করেন বাবা ফারুক মিয়া। বর্তমানে মাদ্রাসা ছাত্র আল আমিন কোথায় আছে কেমন আছে,বেঁচে আছে নাকি মারা গেছে তার কোন তথ্য পাওয়া যাচ্ছে না। ওই মাদ্রাসা ছাত্রকে হারিয়ে তার বাবা-মা পাগল প্রায়।

এঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ছাতক থানার অফিসার ইনর্চাজ নাজিম উদ্দিন বলেন- আমরা সবাই মিলে মাদ্রাসা ছাত্র আল আমিনকে খোঁজে বের করার চেষ্টা করছি। আমার মনে হচ্ছে ওই মাদ্রাসা ছাত্র পড়ালেখার চাপ থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য
কোথাও আত্মগোপনে রয়েছে। এছাড়া অন্য কোন দূর্ঘটনা ঘটার সম্ভাবনা আছে বলে মনে হয়না।

 

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ