,


শিরোনাম:
«» উত্তরায় কিশোর গ্যাংয়ের ছিনতাইয়ের কবলে পথচারীরা। «» আব্দুল্লাহপুরের তালাবদ্ধ গরুর সিকল কেটে থানায় এনে চাঁদা আদায় ক্ষুব্দ গরুর মালিক  «» ‘পড়ি বঙ্গবন্ধুর বই, সোনার মানুষ হই ‘-শীর্ষক সেরা পাঠকদের পুরষ্কার বিতরণী «» মহানন্দা নদীতে যূবকের রহস্যজনক মৃত্যু হস্তক্ষেপ নেই দায়িত্বশীলদের «» জেলা পুলিশ চাঁপাইনবাবগঞ্জ’র মাস্টার প্যারেড সম্পন্ন «» দখিনের দুয়ার উম্মোচনে ফরিদগঞ্জে আনন্দ র‍্যালী «» আব্দুল্লাহপুরে এনা পরিবহনের বাস চাপায় মৃত্যু পথযাত্রী নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী সাআ’দ। «» শিবগঞ্জে অস্ত্র ও ককটেল সহ ১৩ মামলার আসামি গ্রেপ্তারে র‍্যাব «» চাঁপাইনবাবগঞ্জে পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেসি কনফারেন্স সম্পন্ন «» ফরিদগঞ্জে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ৮ম শ্রেণির শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ,অভিযুক্ত যুবক আটক

টেকনাফ স্হল বন্দরের বার্মা লকডাউনের কারণে আমদানী রফতানি বন্ধ

নুরুল আলম টেকনাফ: অর্থ-বানিজ্য বাংলাদেশে লাখ টন চাল রপ্তানির আগ্রহ প্রকাশ মিয়ানমারের বাংলাদেশে লাখ টন চাল আমদানী আগ্রহ মিয়ানমারের প্রকাশিতঃসোমবার ১১জানুয়ারি ২০২১ ক্রাইম নিউজ ঢাকা ডটকম বাংলাদেশের সঙ্গে দামদরে মিলে গেলে ১ লাখ টন চাল আমদানীতে রাজী আছে মিয়ানমার। দেশটির প্রভাবশালী ইংরেজি দৈনিক মিয়ানমার টাইমসের দাবী জানিয়েছেন বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে এ বিষয়ে মিয়ানমার সরকারের আলোচনা চলছে। ব্যাংকক পোস্টের সহযোগী এই গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে সোমবার বলা হয়েছে, সরকারী পর্যায়ের এই চুক্তিতে দরদাম কী হবে, তা এখনো ঠিক হয়নি। মিয়ানমারের খাদ্যশস্য সংগঠনের সেক্রেটারি ইউ অং মিন্ট পত্রিকাটিকে বলেছেন, ‘কয়েক দিনের মধ্যে আমরা দাম নিয়ে আলোচনা করবো। দুই পক্ষের মধ্যে সমঝোতায় পৌঁছানো গেলে সমুদ্রপথে এই চাল পাঠানো হবে।’ চাল উৎপাদনে বিশ্বের ৭তম দেশ মিয়ানমার। এবার তারা আমদানীও রপ্তানীতেও এগিয়ে যাওয়ার জন্য বিশেষ মনোযোগী হয়েছে। বর্তমানে মিয়ানমার সরকার ২০ লাখ টন চাল আমদানী রফতানিকৃত লক্ষ্যমাত্রা গ্রহণ করেছে। এতে দেশটির আন্তর্জাতিক চালের বাজারে আরও এক ধাপ এগিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে।বলে জানা যায় তারা স্থল এবং জলপথের মাধ্যমে ৬৫টি দেশে চাল আমদানী রফতানিকৃত করে থাকে। তাদের রপ্তানীর বড় একটি অংশ যায় চীনে। মিয়ানমার থেকে সর্বশেষ তিন বছর আগে চাল আমদানী ও রপ্তানী করে বাংলাদেশ। মিয়ানমারের খাদ্যশস্য অ্যাসোসিয়েশন মনে করছে, যেহেতু সরকার-টু-সরকার আলোচনা হচ্ছে তাই শেষ পর্যন্ত এবার চুক্তি হয়ে যেতে পারে। এ ক্ষেত্রে টেন্ডারের প্রয়োজন হবে না। মিয়ানমার বলছে, ব্যাটে-বলে মিলে গেলে ফেব্রুয়ারি নাগাদ তারা বাংলাদেশে চাল পাঠাতে চায়। এই ব্যপারে টেকনাফ স্হল বন্দরের এম এইচ ট্রেডিং সিএনএনের কোম্পানি সি আইপি হাসিম থেকে জানতে চাইলে তিনি বলেন দির্ঘ অনেক যাবদ মায়ের মার থেকে আমদানী করেছি আছার পেঁয়াজ চাউল ও রফতানী বিভিন্ন ধরনের তরকারি ও কাপড় এবং লকডাউনের কারণে আমদানী ও রফতানিকৃত বন্ধ হয়েছে ও অনেক ডলারের পণ্য চাউল কেনা ক্রেতা আছে ও জামা আছে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যতে যনি আরও বিস্তারিত উল্লেখ করে বলেন যদিও সরাসরি যুক্ত হবে আমদানী করবে চাউল টেকনাফ স্হলবন্দরের) এই খবর এমন সময় আসল, যখন দেশটির স্থানীয় ব্যবসায়ীরা রাখাইন রাজ্য সরকারের কাছে সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে ব্যবসার অনুমতি চাচ্ছেন। করোনার কারণে প্রায় বছরখানেক ধরে সীমান্ত বন্ধ রয়েছে। রোহিঙ্গা ইস্যুতেও সেখানে পরিস্থিতি উত্তপ্ত।ও মায়ানমার নির্বাচনের প্রসঙ্গে বিরোধ ছিল তার কারণে এই বেহাল দশা মিয়ানমার এখন চাল পাঠাচ্ছে মালয়েশীয়ায়। দেশটি ১৫ হাজার টন চাল অর্ডার করেছে। ফিলিপাইনও চেষ্টা করছে তাদের থেকে চাল নিতে।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ