,


শিরোনাম:
«» রাজধানীর তুরাগে ডোবা থেকে অজ্ঞাত তরুণীর মৃতদেহ উদ্ধার «» উত্তরায় মা দিবস উপলক্ষে ৩০জন রত্নগর্ভা ‘মা’কে সম্মাননা «» উত্তরায় শিনশিন জাপান হাসপাতালে রোগীকে আটক রেখে নয় লাখ টাকা বিল। «» আবদুল আউয়াল ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের পক্ষ থেকে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ «» তুরাগ বাসীসহ দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন কৃষকলীগের সভাপতি মোঃ নাসির উদ্দিন «» চাঁপাইনবাবগঞ্জে সার ডিলারদের অনিয়মে জিম্মি কৃষক ও চাষিরা «» ঢাকা-আশুলিয়া মহাসড়কে গাড়ির চাপায় সাবেক পুলিশ সদস্য নিহত «» চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে প্রশাসনকে কঠোর হওয়ার আহ্বান জানান এমপি হাবিব হাসান। «» মশার অসহ্যকর যন্ত্রণায় তিক্ত তুরাগবাসী, দায়িত্বশীলরা বলছেন অসহায়ত্বের কথা «» তুরাগে মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করাকে কেন্দ্র করে পুলিশের উপর বস্তিবাসীর হামলা। 

গলাচিপায় কাঠ মিস্ত্রির অসহায় জীবন যাপন বঙ্গবন্ধুর কাজ করেও ভাগ্য খোলে নি

মোঃমাজহারুল ইসলাম মলি: পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলায় প্রবীণ কাঠ মিস্ত্রি পরিবার নিয়ে অসহায় জীবন যাপন। আচল অবস্থায়ও নিজের পরিবারের খরচ যোগাতে চুক্তি ভিত্তিক আসবাপত্রের কাজ করে বলে জানা গেছে। পরিবার ও একান্ত সাক্ষাতকার সূত্রে জনা যায় উপজেলার গোলখালী ইউনিয়নের ৫ ওয়ার্ড কালীরচর গ্রামের মৃত রাম চরন মিস্ত্রি এর ছেলে লক্ষ্মণ চন্দ্র মিস্ত্রি ঢাকার ফার্নিচার ও বাসাবাড়ির কাঠের কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করতেন। তাঁর হাতের নিখুঁত কারুকাজের সৌন্দর্য দেখে সহজেই সকলের মন আকৃষ্ট করত। শৈল্পিক কাজের সুবাদে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে নামীদামী লোকের বাড়ির আসবাবপত্র তৈরী করে দিয়েছেন। আর এই সূত্রে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গড়ে উঠে ঢাকার অধক্ষ মোঃবাদশা খায়রুল সাহেবের সাথে। তার সহোযোগিতায় শেখ পরিবারের কাজ করার সুযোগ হয়েছিল। শেখ কামাল সাহেবের ঠিকেদারি প্রতিষ্ঠানে একাধিক সাইড এর কাঠের কাজ সমাপ্ত করেছেন কিন্তু সমাপ্ত করতে পারেনি ঐ পরিবারের পারিবারিক আসবারপত্রের কাজ। ১৯৭৫ এর ১৫ ই আগষ্টে ঘাতকদের নীল নকশার কারনে তার স্বপ্ন পুরান হতে দেয়নি ঘাতকরা। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে তার নির্মিত ছোপায় না বসাতে পেরে আক্ষেপ প্রকাশ করেন। কানে ভাড় সোনা ৮৫ বছর বয়সী লক্ষ্মণ চন্দ্র মিস্ত্রি আবেগ জড়িত কন্ঠে বলেন ” প্রিন্সিপাল বাদশা খায়রুল সাহেব শেখ মুজিবের (রাজার) ছোপা বানাইতে নিয়া যায়। চৌদ্দ-পনের দিন ধানমন্ডি তার (রাজার) বাড়িতে যাইয়া কাজ করছি। বিশ্বোইত বার (বৃহস্পতি বার) রাস পূর্নিমার দিন গুলির শব্দ শুনি। ভয়তে আর ঐ বাড়িতে কাজে যাইতে সাহস পাইনাই। এহন আমার খবর কে রাহে, রাজা (বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান) বাইছা থাকলে আমরা ভাল থাকতাম”

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ