,


শিরোনাম:
«» ক্ষতিগ্রস্ত ৩৩ দোকান মালিকরা পেলেন প্রধানমন্ত্রীর অনুদান «» যৌতুক না পেয়ে নির্যাতনের অভিযোগ, গৃহবধূকে মারধর «» তুরাগে ১৫০টি দোকানের বিদ্যুৎ বিল মাসে ৭০০ টাকা দেখিয়ে প্রায় ৫ লক্ষ টাকা আত্মসাৎকারী নামধারী নেতা গ্রেফতার। «» তুরাগে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের নতুন সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রম শুরু «» তুরাগে ২ বছরের শিশু ধর্ষণ : ধর্ষক মামুন আটক। «» ইদ-ই-মিলাদুন্নবি উপলক্ষে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের নিয়ে দোয়া ও আলোচনা সভার আয়োজন করেছে স্বপ্নালোড়ন বাংলাদেশ «» কক্সবাজার টেকনাফের এডভোকেট আব্দুর রহমান ইয়াবাসহ তুরাগে পুলিশের জালে ধরা। «» জিএম কাদেরের ফোন ছিনতাই করে ২৩ হাজার টাকা বিক্রি, বসুন্ধরা মার্কেট থেকে ৮ দিন পর খোলা ফোন উদ্ধার। «» শেরে-বাংলা নগরে প্রশাসনকে মাসোহারা দিয়েই চলছে সরকারি দপ্তরের গাড়ির তেল চুরি «» উত্তরায় কিশোর গ্যাংয়ের ছিনতাইয়ের কবলে পথচারীরা।

সুনামগঞ্জে টাংগুয়ার হাওরে চলছে হরিলুট,৪ নৌকা আটক

হাওরাঞ্চল প্রতিনিধি,সুনামগঞ্জ: সুনামগঞ্জে রামসা প্রকল্পের টাংগুয়ার হাওরে চলছে মাছ,বন ও গাছ
নিধনের মহোৎসব। এলাকার লোকজন সংঘবদ্ধ হয়ে প্রশাসনে চোখে ফাঁকি দিয়ে দীর্ঘদিন যাবত অবৈধ ভাবে এসব কাজ করছে। গতকাল শুক্রবার বিকাল ৪টা থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত টাংগুয়ার হাওরে অভিযান চালিয়ে
বিভিন্ন প্রজাতির বনসহ ৪টি নৌকা আটক করেছে প্রশাসন। খোঁজ নিয়ে জানা যায়- প্রতিদিনের মতো গতকাল শুক্রবার বিকেলে জেলার তাহিরপুর উপজেলার দক্ষিণ শ্রীপুর ইউনিয়নের
মন্দিআতা,শিবরামপুর ও মাইয়াজুরী এলাকার কিছু সংখ্যক লোক সংঘবদ্ধ হয়ে টাংগুয়ার হাওরের দায়িত্বে থাকা আনসারদের ম্যানেজ করে হাওরের ভিতরে নৌকা নিয়ে প্রবেশ করে। এরপর সবাই মিলে টাংগুয়ার
হাওরের লেইছ্যামারা কান্দা নামক স্থান থেকে অবাধে নলখাগড়া,চাইল্লা ও বল্লুয়া বন কাটতে থাকে। এই খবর পেয়ে অভিযান চালিয়ে ৪টি কাঠের নৌকাসহ বন আটক করা হয়। অভিযানের খবর পেয়ে সবাই পারিয়ে
যাওয়ার কারণে কাউকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। কিন্তু সংঘবদ্ধ এই চক্রটি প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে প্রতিদিন অবাধে টাংগুয়ার হাওরের মাছ,বন ও গাছ কেটে অবাধে বিক্রি করছে। এর ফলে হাওরের
প্রাকৃতিক পরিবেশ বিরাট হুমকির মুখে পড়েছে। এব্যাপারে তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পদ্মাসন সিংহ সাংবাদিকদেরকে বলেন- টাংগুয়ার হাওরের প্রাকৃতিক পরিবেশ রক্ষা করার জন্য আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। হাওরের পরিবেশ যারা নষ্ট করছে তাদেরকে কখনোই ছাড় দেওয়া হবেনা।

 

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ