,


শিরোনাম:
«» তুরাগে গৃহবধু হত্যার অভিযোগে স্বামীর বন্ধু গ্রেফতার «» ভাড়া বাসায় অবস্থান করে স্বর্ণের দোকানে ডাকাতী করতো তারা’ «» ঈশ্বরদীতে ২০০ লিটার মদসহ গ্রেফতার ১ «» ঈশ্বরদীতে নবজাতক হত্যার অভিযোগ সাবেক স্বাস্থ্যকর্মীর আকলিমার বিরুদ্ধে «» সাংবাদিকতার দায় একমাত্র জনসাধারণের কাছে:তিতুমীর «» ঈশ্বরদীতে প্রণোদনার সার-বীজ প্রদানে স্বজনপ্রীতির অভিযোগ প্রকৃত কৃষকদের «» ঈশ্বরদীতে বালু খেকোদের কবলে বিলিন হাজার হেক্টর ফসলি জমি, দিশেহারা কৃষক «» ঠাকুরগাঁওয়ে বিশ্ব মৃত্তিকা দিবস পালিত র‍্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত «» চাঁপাইনবাবগঞ্জ সাবেক এমপি ও জেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদকের বাসভবনে হামলা «» চাঁপাইনবাবগঞ্জ কৃষকলীগের অনুষ্ঠানে সংঘর্ষে যুবলীগ নেতা মিনহাজ আহত

সুনামগঞ্জে ভারতীয় মদসহ ১জন গ্রেফতার

নিজেস্ব প্রতিবেদক,সুনামগঞ্জ: সুনামগঞ্জে ভারতীয় মদসহ ১জন মাদক
ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। নাম কাউসার মিয়া (২৯)। সে জেলার তাহিরপুর
উপজেলার উত্তর বড়দল ইউনিয়নের মাহারাম গ্রামের মৃত ফজর আলীর ছেলে। আজ
২৪.১২.২০ইং বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় পুলিশ মাদক ব্যবসায়ী কাউসারকে
জেলহাজতে পাঠিয়েছে।
এব্যাপারে পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়- প্রতিদিনের মতো গতকাল
বুধবার রাত ৭টায় জেলার তাহিরপুর সীমান্তের লাউড়গড় বিজিবি ক্যাম্পের
যাদুকাটা নদী দিয়ে বিজিবি অধিনায়কের সোর্স পরিচয়ধারী আমিনুল,
নবীকুল,জসিম মিয়া,নুরু মিয়াগং ভারতের ভিতরে প্রবেশ করে পাথর ও কয়লা পাচাঁর
করে বিজিবি ক্যাম্প সংলগ্ন শাহ আরেফিন মোকাম এলাকাসহ যাদুকাটা নদীর
তীরে মজুত করে। আর মদ,গাঁজা বিড়ি ও ইয়াবা পাচাঁর করে বিভিন্ন বাড়িঘরের
ভিতর লুকিয়ে রাখে। এই খবর পেয়ে যাদুকাটা নদীতে অভিযান চালিয়ে ১০বোতল
ভারতীয় অফিসার চয়েজ মদসহ মাদক ব্যবসায়ী কাউসার মিয়াকে গ্রেফতার করে
বিজিবি। কিন্তু সোর্সদের গ্রেফতারের ব্যাপারে নেওয়া হয়নি কোন পদক্ষেপ। অথচ
এই লাউড়গড় সীমান্তের যাদুকাটা নদী দিয়ে পাচাঁরকৃত চোরাই কয়লা নিয়ে
বিজিবি ও সোর্স পরিচয়ধারী চোরাচালানীদের মধ্যে সংঘর্ষ ও ধাওয়া পাল্টা
ধাওয়াসহ ১১ রাউন্ড গুলি বর্ষন করা হয়। এই সংঘর্ষের ঘটনায় নারী,শিশু ও বিজিবি
সদস্যসহ ১৫ জন আহত হয়। পরে সালিশের মাধ্যমে এই ঘটনাটি সমাধান করে
এলাকাবাসী। তারপরও ১০জনের নাম উল্লেখসহ গং দিয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের
করে বিজিবি। কিন্তু লাউড়গড় সীমান্ত দিয়ে পাথর ও কয়লাসহ মাদক পাচাঁর বন্ধ
হয়নি। কারণ সোর্সদের গ্রেফতারের ব্যাপারে কখনোই নেওয়া হয়না কোন পদক্ষেপ।
এব্যাপারে তাহিরপুর থানার ওসি আব্দুল লতিফ বলেন-ভারতীয় মদসহ কাউসার মিয়া
নামের একজনকে বিজিবি গ্রেফতার করে থানায় সোপদ করার পর মামলা দিয়ে
তাকে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ