,


শিরোনাম:
«» তুরাগে গৃহবধু হত্যার অভিযোগে স্বামীর বন্ধু গ্রেফতার «» ভাড়া বাসায় অবস্থান করে স্বর্ণের দোকানে ডাকাতী করতো তারা’ «» ঈশ্বরদীতে ২০০ লিটার মদসহ গ্রেফতার ১ «» ঈশ্বরদীতে নবজাতক হত্যার অভিযোগ সাবেক স্বাস্থ্যকর্মীর আকলিমার বিরুদ্ধে «» সাংবাদিকতার দায় একমাত্র জনসাধারণের কাছে:তিতুমীর «» ঈশ্বরদীতে প্রণোদনার সার-বীজ প্রদানে স্বজনপ্রীতির অভিযোগ প্রকৃত কৃষকদের «» ঈশ্বরদীতে বালু খেকোদের কবলে বিলিন হাজার হেক্টর ফসলি জমি, দিশেহারা কৃষক «» ঠাকুরগাঁওয়ে বিশ্ব মৃত্তিকা দিবস পালিত র‍্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত «» চাঁপাইনবাবগঞ্জ সাবেক এমপি ও জেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদকের বাসভবনে হামলা «» চাঁপাইনবাবগঞ্জ কৃষকলীগের অনুষ্ঠানে সংঘর্ষে যুবলীগ নেতা মিনহাজ আহত

ফরিদগঞ্জে কিশোরী অপহরণ করে ধর্ষণ, ধর্ষক আটক

কামরুজ্জামান, ফরিদগঞ্জ (চাঁদপুর ) প্রতিনিধি:
ফরিদগঞ্জে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কৌশলে অপহরণ করে এক কিশোরী(১৬)ধর্ষনের অভিযোগ করা হয়। অভিযোগে মিজানুর রহমান (২৫) নামে এক পল্লী বিদ্যুতের ঠিকাদারের শ্রমিককে আটক করেছে পুলিশ।

গত বুধবার (১৬ ডিসেম্বর) বিকালে কিশোরীর পিতা বাদী হয়ে ফরিদগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেছেন। আটককৃত মিজানুর রহমান পঞ্চগড় জেলার সদর উপজেলার গোয়ালঝাড় গ্রামের ইউছুপ গাজীর ছেলে।

থানায় মামলা সূত্রে জানা গেছে, দুই মাস পুর্বে চাঁদপুর পল্লীবিদ্যুৎ সমিতির আওতাধীন একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের শ্রমিক মিজানুর রহমান ফরিদগঞ্জ পৌরসভাধীন সাফুয়া এলাকায় কাজ করার সময় পাশ্ববর্তী খেয়াঘাটের মাঝির কিশোরি মেয়ের সাথে পরিচয় হয়।পরিচয় সূত্র ধরে মুঠো ফোনে আলাপচারিতার এক পর্যায়ে গত ১ ডিসেম্বর রাতে মিজানুর রহমান ওই কিশোরীকে বিয়ের প্রলোভনে দেখিয়ে কৌশলে অপহরণ করে ঢাকায় নিয়ে যায়। সেখানে তার এক নিকটাত্মীয়ের বাসায় কিশোরীকে আটকে রেখে ধর্ষণ করে। পরে ওই কিশোরী কৌশলে পালিয়ে এসে তার অভিবাবকদের ঘটনা জানায়। মান সন্মানের ভয়ে পরিবারের লোকজন কোনো প্রকার আইনের আশ্রয় গ্রহণ করেনি।

এরই মধ্যে মিজানুর রহমান ১৫ ডিসেম্বর মঙ্গলবার রাতে আবারো ঐ কিশোরীকে অপহরণের চেষ্টা করলে পরিবারের লোকজন টের পেলে সে পালিয়ে যায়।

পরে ১৬ ডিসেম্বর বুধবার ওই কিশোরীর পিতা বাদী হয়ে ফরিদগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করলে পুলিশ তাৎক্ষণিক অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত মিজানুর রহমানকে আটক করে।

এ বিষয়ে ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ শহীদ অভিযুক্তকে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের মামলা দায়েরের পর মিজানকে আদালতে প্রেরন করা হয়েছে ।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ