,


শিরোনাম:
«» ঢাকা ১৮ আসনে দয়াল কুমার বড়ুয়ার ঈদ উপহার বিতরণ। «» আব্দুল্লাহপুরে ময়মনসিংহের অবৈধ বাস কাউন্টারে যাত্রী হয়রানি ও মারধর অভিযোগ উঠেছে। «» জামালপুরে সাংবাদিক নাদিম হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে উত্তরা প্রেস ক্লাব। «» আব্দুল্লাহপুর টি আই’র লাঠির আঘাতে পরিবহন শ্রমিকের কান্না। «» তুরাগে এক দশক ধরে মাদক ব্যবসা করা কদম গ্রেফতার। «» তুরাগে গৃহবধু হত্যার অভিযোগে স্বামীর বন্ধু গ্রেফতার «» ভাড়া বাসায় অবস্থান করে স্বর্ণের দোকানে ডাকাতী করতো তারা’ «» ঈশ্বরদীতে ২০০ লিটার মদসহ গ্রেফতার ১ «» ঈশ্বরদীতে নবজাতক হত্যার অভিযোগ সাবেক স্বাস্থ্যকর্মীর আকলিমার বিরুদ্ধে «» সাংবাদিকতার দায় একমাত্র জনসাধারণের কাছে:তিতুমীর

চরফ্যাশনে ঢাল চরের নদী ভাঙা ৫ শত পরিবারের কান্না থামেনি!

এ.এইচ. রিপন ভোলা প্রতিনিধি৷ ভোলা জেলা চরফ্যাশন উপজেলার বিচ্ছিন্ন ইউনিয়ন ঢাল চরে মেঘনান দীর ভাঙ্গনে ভিটেমাটি হারানো প্রায় ৫ শত পরিবারের কান্না আজও থামেনি৷ তাদের দাবি ভাত-কাপড় চাইনা একটু বসবাসের জমি চাই৷

সোমবার (১৪ ডিসেম্বর) সরেজমিনে দেখা যায়, মেঘনা নদীর মোহনায় অবস্থিত ঢালচর ইউনিয়নের ৯ ওয়ার্ডের মধ্যে ৬টি ওয়ার্ড মেঘনা নদীর গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে৷ নদী ভাঙ্গনের শিকার ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর জীবন যাত্রা স্থবির হয়ে পরেছে৷ কেউ বনের মাঝে, কেউ নদীর পাড়ে, কেউবা আবার অন্যের যায়গায় ঝুপড়ি বেঁধে শীত ও নদীর ঠান্ডা বাতাসের মধ্যে মানবেতর জীবন যাপন করছে। এদের মধ্যে বেশির ভাগ মানুষেরই শীত নিবারনের একটি কাপড়ও নেই বলে জানা গেছে।

তাদের মধ্যে একজন সাহেব আলী মিয়াজী (৭০) বলেন, ৪৫ বছর ধরে ঢাল চরে বসবাস করি, কারো কাছে কোনো দিন কিছুই চাইনি৷ ৩ বার নদী ভাঙ্গনের পরে আপনাদের কাছে একটু বসবাসের জায়গা ভিক্ষা চাই৷ ফরেস্টের লোকজন বনের মধ্যে থাকতে দেয়না৷ শুধু মামলার ভয় দেখায়৷

ঢালচর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম পাটওয়ারী বলেন, ভাঙনে পরিষদ হারানোতে এখন ব্যক্তিগত ঘরে অস্থায়ী পরিষদ চালাতে হচ্ছে। মানুষের মাথা গোঁজার ঠাঁই নেই। তাঁদের জরুরি পুনর্বাসন দরকার। বনের মধ্যে ফাঁকা জমি আছে, চর আছে সরকার ইচ্ছা করলে জমি বরাদ্দ দিতে পারে।

ভোলা জেলা প্রশাসক মাসুদ আলম বলেন, ঢাল চরের নদী ভাঙ্গা পরিবারগুলোর পুর্নবাসনের জন্য ভুমি মন্ত্রণালয় বরাবর চিঠি প্রেরণ করা হয়েছে৷ অনুমোদন সাপেক্ষে আবাসন নিশ্চিত করা হবে।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ