,


শিরোনাম:
«» রাজধানীর তুরাগে ডোবা থেকে অজ্ঞাত তরুণীর মৃতদেহ উদ্ধার «» উত্তরায় মা দিবস উপলক্ষে ৩০জন রত্নগর্ভা ‘মা’কে সম্মাননা «» উত্তরায় শিনশিন জাপান হাসপাতালে রোগীকে আটক রেখে নয় লাখ টাকা বিল। «» আবদুল আউয়াল ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের পক্ষ থেকে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ «» তুরাগ বাসীসহ দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন কৃষকলীগের সভাপতি মোঃ নাসির উদ্দিন «» চাঁপাইনবাবগঞ্জে সার ডিলারদের অনিয়মে জিম্মি কৃষক ও চাষিরা «» ঢাকা-আশুলিয়া মহাসড়কে গাড়ির চাপায় সাবেক পুলিশ সদস্য নিহত «» চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে প্রশাসনকে কঠোর হওয়ার আহ্বান জানান এমপি হাবিব হাসান। «» মশার অসহ্যকর যন্ত্রণায় তিক্ত তুরাগবাসী, দায়িত্বশীলরা বলছেন অসহায়ত্বের কথা «» তুরাগে মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করাকে কেন্দ্র করে পুলিশের উপর বস্তিবাসীর হামলা। 

রাজধানীর তুরাগের বুকে এখনো রয়েছে ছোট্ট ছোট্ট গ্রাম সহ মাটির ঘর।

উত্তরা সংবাদদাতাঃ রাজধানীর ঐতিহ্যবাহী তুরাগ থানা হরিরামপুর ইউনিয়ন থেকে নতুন সিটি করপোরেশনের আওতায় আসলেও তেমন কোনো উন্নয়ন হয়নি।এখনও সেখানে রয়েছে গ্রামের প্রতিচ্ছবি। গ্রামের মত রাস্তাঘাট, সারি সারি গাছপালা রয়েছে এখন ও অসংখ্য মাটির তৈরী ছোট বড় ঘর ।এ যেন রাজধানীর বুকে ছোট্ট একটি গ্রাম।
স্থানীয়রা জানান,  তুরাগের সাবেক হরিরামপুর ইউনিয়ন বর্তমান ঢাকা উত্তর সিটির ৫২, ৫৩ ও ৫৪ নং ওয়ার্ড। এই তিনটি ওয়ার্ডে ছোট-বড় ৩৩ গ্রাম । এখানে এক লাখ ১৯ হাজার ভোটারসহ মোট  প্রায় চার লাখেরর বেশি লোকের বসবাস। গ্রাম গুলোর মধ্য ছোট বড় অসংখ্য মাটির ঘর সহ ৪ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় অর্ধ শতাধিক বেসরকারি কলেজ , ২০ টি মাদ্রাসা ও ১ টি ফায়ার সার্ভিস স্টেশন রয়েছে। রয়েছে একটি আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস।
তুরাগের গুরুত্বপূর্ণ গ্রামের রাস্তা রানাভোলা, কামারপাড়া , ভাটুলিয়া, ধউর, আশুতিয়া, রাজাবাড়ি, ফুলবাড়িয়া, সিরাজ মার্কেট, ধরঙ্গার টেক, নয়ানগর, চন্ডলভোগ, ডিয়াবাড়ী, নলভোগ, পাকুরিয়া, আহালিয়া, দলিপাড়া, বাউনিয়া, উলুদাহা, বাদালদী  শতকরা ৮০ ভাগ রাস্তা যান চলাচলের অযোগ্য, সামান্য বৃষ্টি হলেই ময়লা পানিতে ডুবে যায় বেশির ভাগ সড়ক। তখন যান চলাচল তো দূরের কথা মানুষ হাঁটাও অসম্ভব হয় না।
রাস্তাঘাটের বেহাল দশা, জলাবদ্ধতা, দখল, দূষন আর বিদ্যুৎ ও পানি গ্যাস সংকট চরম, তুরাগ বাসীর যেন নিত্যদিনের সঙ্গী।
তাদের যাতায়াতের যানবাহন হলো  নিষিদ্ধ ব্যাটারিচালিত অটোরিক্সা।  তিনটি ওয়ার্ডে রয়েছে ছোট বড় অনেক বস্তি সহ অন্ধকারাচ্ছন্ন অলিগলি। সন্ধ্যা হলেই ২০- ২৫ স্পটে জমে উঠে মাদক সেবী আর  কিশোর গ্যাংদের মেলা। এখান কার অধিকাংশ  স্বল্প আয়ের মানুষ বসবাস করে।তাই তাদেরকে টার্গেট কিছু অসাধু চক্র অর্ধশতাধিক মাল্টিপারপাস ও কো-অপারটিভ সমিতি খুলে  চড়া সুদের উপর টাকা লাগিয়ে সর্বশান্ত করছে।
তুরাগ ধানাধীন তিন টি ওয়ার্ড ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) অন্তর্ভুক্ত হলেও এখানে তেমন কোন সুফলতা  পায়নি এলাকাবাসী।  কেউ কেউ নিজের প্রয়োজনে কিছু উন্নয়ন করলেও তাতে আরও ভোগান্তি বাড়ছে। নগরবাসীর দাবী দ্রুত যদি তুরাগের উন্নয়ন ও সংস্কার না হয় তবে  বসবাসের অযোগ্য হবে সকল ওয়ার্ড ।
এ বিষয়ে  ৫২,৫৩ ও ৫৪ নং ওয়ার্ডের  কাউন্সিলরদের কাছে জানতে চাইলে তারা জানান, ইতি মধ্যে উত্তর সিটির নগর পিতা আমাদের মেয়র মহোদয় তাদের নিজ নিজ ওয়ার্ড পরিদর্শন করেছেন, তিনি নিজ চোখে দেখেছেন রাস্তাঘাট সহ বিভিন্ন সমস্যা । আমারা এলাকার উন্নয়ন, রাস্তাঘাট সংস্কার, আইন শৃঙ্খলার উন্নতি সহ মাদক র্নিমূলে  সর্বোচ্চ প্রাধান্য দিয়ে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি,  যাতে এই এলাকার মানুষ আধুনিক নগরীর সকল সুবিধা পায়।
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ